advertisement
আপনি দেখছেন

অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধি ও সংকটে পেঁয়াজ চুরি হয়ে যাওয়ার ভয়ে রাত জেগে পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা দিচ্ছেন কৃষকরা। পেঁয়াজ উৎপাদনের দিক দিয়ে দেশে তৃতীয় অবস্থানে থাকা রাজবাড়ী জেলার বিভিন্ন এলাকার কৃষকদের সঙ্গে কথা বলে এমন তথ্যই পাওয়া গেছে।

onion farmer nightরাত জেগে পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা দিচ্ছেন কৃষকরা

চলতি মৌসুমে পেঁয়াজের বাম্পার ফলন ও দাম বেশি হওয়ায় অধিক লাভের আশা করছেন সেখানকার চাষিরা। তারা জানায়, এবার পেঁয়াজের ফলন ভালো হয়েছে। তাই চোরের ভয়ে রাত জেগে পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা দিতে হচ্ছে।

পেঁয়াজ তোলার সময় হয়েছে জানিয়ে রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার কৃষক নাজিম বলেন, এবার ১৫৪ শতাংশ জমিতে মুড়িকাটা পেঁয়াজের বীজ রোপণ করা হয়। চলতি সপ্তাহের মধ্যেই এগুলো বিক্রি করা যাবে। পেঁয়াজের বাজার ভালো হওয়ায় উপজেলার আরো অনেকেই মুড়িকাটা পেঁয়াজ চাষ করেছে।

আরেক কৃষক জমির উদ্দিন বলেন, প্রতি বিঘা জমিতে পেঁয়াজ চাষে ৫০ হাজার টাকার মত খরচ হয়। গত বছর বৃষ্টি হওয়ায় অনেক ক্ষতি হয়ে যায়। তবে এবার সেই ক্ষতি পুষিয়ে নেয়া যাবে।

সদর উপজেলার উড়াকান্দা গ্রামের কৃষক জলিল মণ্ডল বলেন, এবার কিং জাতের পেঁয়াজ চাষ করা হয়েছে। ফলনও হয়েছে অন্যান্য সময়ের তুলনায় অনেক বেশি। তাই আশা করা হচ্ছে, সাত দিনের মধ্যে এ পেঁয়াজ বাজারে তোলা যাবে।

সদর উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. বাহাউদ্দিন বলেন, এবার বর্ষা মৌসুমে বেলে ও দোঁআশ মাটির উঁচু জমিতে পেঁয়াজের বীজ রোপণ করা হয়। রাজবাড়ীর মাটি পেঁয়াজ চাষের উপযোগী হওয়ায় দেড় মাসের মধ্যেই ফসল তোলা যায়। তাছাড়া দেশের মোট চাহিদার বড় অংশ রাজবাড়ী থেকেই সরবরাহ করা হয়।