advertisement
আপনি দেখছেন

বিপুল পরিমাণ অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের চতুর্থ শ্রেণির এক কর্মচারী ইয়াছিন মিয়াকে শুক্রবার আটক করেছে সদর মডেল থানা পুলিশ। ওই অফিসে পিয়নের চাকরি করেন তিনি।

crorepati peon

সদর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মুহাম্মদ সেলিম উদ্দিন জানান, ভোরে ইয়াসিনকে জেলা সদর থেকে আটক করা হয়।

পিয়ন ইয়াছিন নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় গত ২৯ নভেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থানায় সাধারণ ডায়েরি করেন সদর উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার মো. মোস্তাফিজুর রহমান।

সামান্য পিয়ন পদে চাকরি করে ইয়াছিন অঢেল সম্পদের মালিক হয়েছেন বলে অভিযোগ রয়েছে। স্থানীয়রা জানায়, জেলা শহরে রয়েছে তার তিনটি বাড়ি, সাথে তিন স্ত্রীও।

প্রায় সময়ই অফিসের নকল, তল্লাশি ও রেজিস্ট্রেশন ফিসহ চালানের টাকা সোনালী ব্যাংকে জমা দিত সে। কিছুদিন আগে অফিসিয়াল অডিটে তার বিরুদ্ধে ‘কোটি টাকার ঘাপলা’ প্রকাশ পায়। এরপর গা ঢাকা দেন ইয়াছিন। অভিযোগ রয়েছে, ব্যাংকের ভুয়া চালান তৈরি করে তিনি ওই টাকা আত্মসাৎ করেন। ইউএনবি।