advertisement
আপনি দেখছেন

ইংরেজি নতুন বছরের শুরুতেই সরকারের মন্ত্রিসভায় রদবদল হতে পারে। চলতি মাসের ২০-২১ তারিখ আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলনের পর মন্ত্রিসভায় এ পরিবর্তন দেখা যেতে পারে। চলমান শুদ্ধি অভিযানের মধ্যে দল ও সরকার পৃথক রাখার অংশ হিসেবে এ পদক্ষেপ নেয়া হবে। এমন গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়েছে বিভিন্ন মহলে।

cabinet government

শুদ্ধি অভিযান শুরুর পর আওয়ামী লীগের বিভিন্ন অঙ্গ-সহযোগী সংগঠনের শীর্ষ নেতৃত্বে বড় ধরনের পরিবর্তন আনা হয়েছে। ২০-২১ ডিসেম্বর জাতীয় সম্মেলনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগের বিভিন্ন পদেও বড় ধরনের পরিবর্তন আসতে পারে।

আওয়ামী লীগের একাধিক দায়িত্বশীল নেতা জানান, দলের শুদ্ধি অভিযান একটা পর্যায়ে নিয়ে নতুন নেতৃত্বের হাতে দায়িত্ব তুলে দিয়ে মন্ত্রিসভায় পরিবর্তন আনার পরিকল্পনা নেয়া হয়েছে। এবং সেটা নতুন বছরের জানুয়ারি মাসেই হিতে পারে।

একাধিক সূত্র বলছে, মন্ত্রিসভা থেকে বিতর্কিত ও নতুন করে গুরুত্বপূর্ণ পদ পাওয়া নেতারা বাদ পড়তে পারেন। তাদের স্থানে সাবেক কয়েকজন সিনিয়র মন্ত্রী মন্ত্রিসভায় অন্তর্ভুক্ত হতে পারেন। সম্প্রতি কয়েকজন মন্ত্রী নানা কারণে সমালোচনার মুখে পড়ায় সরকারকে বিব্রত হতে হয়েছে। তাই নতুন বছরেই মন্ত্রিসভায় রদবদলের চিন্তা করা হচ্ছে।

বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের একটি গণমাধ্যমকে বলেছেন, যা হওয়ার দলের জাতীয় সম্মেলনের পর হবে, বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ওপর নির্ভর করছে। তবে এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু জানাননি তিনি। এর আগে গত বুধবারও তিনি মন্ত্রিসভায় পরিবর্তনের ইঙ্গিত দিয়েছিলেন।

তবে মন্ত্রিসভা রদবদল, সম্প্রসারণ, পদোন্নতি বা বাদ পড়ার বিষয়ে কিছুই জানেন না বলে জানিয়েছেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম।

চলতি বছরের গত ৭ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্ব বর্তমান মন্ত্রিসভা যাত্রা শুরু করে। বর্তমানে মন্ত্রিপরিষদে ২৫ জন মন্ত্রী, ১৯ জন প্রতিমন্ত্রী ও ৩ জন উপমন্ত্রী রয়েছেন।