advertisement
আপনি দেখছেন

ঢাকার কেরানীগঞ্জের চুনকুঠিয়ায় একটি প্লাস্টিকের কারখানায় অগ্নিকাণ্ডে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৩ জনে দাঁড়িয়েছে। গতকাল বুধবার বিকেলের এ দুর্ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ হয়েছেন ৩০ জনের মতো শ্রমিক। তাদের অনেকের অবস্থাই আশঙ্কাজনক। ফলে মৃতের সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

keranigonj fire factoryকেরানীগঞ্জে প্লাস্টিক কারখানায় আগুন

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ ইন্সপেক্টর বাচ্চু মিয়া জানান, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় ঢামেকের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গতকাল বিকাল থেকে আজ দুপুর পর্যন্ত ১৩ জনের মৃত্যু হয়েছে।

মৃতদের মধ্যে রয়েছেন- ইমরান (১৬), বাবুল (২৫), রায়হান (১৬), আ. খালেক (৩৫), সালাউদ্দিন (৩২), সুজন (১৯), জিনারুল (৩২), আলম (৩৫), মেহেদী শান্ত (২০), ফয়সাল আহমেদ (২৯), জাহাঙ্গীর (৫৫) ও আ. রাজ্জাক (৪৫)। তাৎক্ষণিক বাকিদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

বাচ্চু মিয়া জানান, এ ঘটনায় অগ্নিদগ্ধ ৩০ জন শ্রমিক ঢামেক হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাদের অনেকের শারীরিক অবস্থা আশঙ্কাজনক। ফলে মৃতের সংখ্যা বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

এ বিষয়ে ঢামেকের বার্ন ইউনিটের আবাসিক সার্জন (আরএস) ডা. আরিফুল ইসলাম নবীন জানান, অগ্নিদগ্ধদের প্রায় সবারই শরীরে ৯০ ভাগের পুড়ে গেছে। শুরু থেকেই তাদের অবস্থা আশঙ্কাজনক ছিল। তাদের সর্বাত্মক চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, কারখানায় থাকা গ্যাস সিলিন্ডার বিস্ফোরণ থেকেই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটে। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে।