advertisement
আপনি দেখছেন

পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন বলেছেন, ‘ভারত জোর করে কাউকে বাংলাদেশে পাঠাচ্ছে না।’ আজ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সাংবাদিকদের তিনি আরো বলেন, ‘বাংলাদেশ-ভারত সম্পর্ক স্বাভাবিক। এ সম্পর্ক প্রভাবিত হবেনা। এ সম্পর্ক মধুর।’

momen foreign minister 1পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশি নাগরিক ছাড়া অন্য কেউ দেশে প্রবেশ করলে সরকার তাদের ফেরত পাঠাবে।’

ভারতের পার্লামেন্টে নাগরিকত্ব বিল পাসের পর থেকে উৎকণ্ঠায় আছে সেদেশের মুসলমানরা। এরই মধ্যে অনেকে দেশও শুরু করেছেন।

এ বিষয়ে ভারতের রাষ্ট্রদূত রিভা গাঙ্গুলী পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে 'বাংলাদেশের ক্ষতি হয় এমন কিছু ভারত করবে না' বলে জানিয়েছেন।

তাছাড়া ভারতের উত্তর-পূর্ব রাজ্যগুলোতে বাংলাদেশিদের ভ্রমণে কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই বলে জানান একে মোমেন। 

মন্ত্রী বলেন,  সরকারের পক্ষ থেকে অবৈধভাবে ভারতে থাকা বাংলাদেশিদের তালিকা চাওয়া হবে। দালালদের মাধ্যমে বাংলাদেশে কিছু অনুপ্রবেশের ঘটনাও ঘটছে। কিন্তু নাগরিক না হওয়া সত্ত্বেও কেউ বাংলাদেশে থাকার উদ্দেশে এলে তাদের ফেরত পাঠানো হবে জানান মন্ত্রী।

রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবর্তন পদক্ষেপ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক বিচারিক আদালতে রোহিঙ্গা গণহত্যা সম্পর্কিত শুনানির পর থেকে মিয়ানমারের সুর নরম হয়ে এসেছে। দেশটি তাকে সফরের আমন্ত্রণও জানিয়েছে। এ ব্যাপারে তিনি মিয়ানমারকে বাংলাদেশে এসে রোহিঙ্গা যাছাই-বাছাই করার কথা বলেছেন। বাংলাদেশের সেনাপ্রধান মিয়ানমার যাওয়ায় আলোচনার দ্বার আরো উন্মুক্ত হয়েছে বলে জানান মন্ত্রী।