advertisement
আপনি দেখছেন

বাংলাদেশের তথ্য ভারতে পাচারের অভিযোগে দেব প্রসাদ সাহা নামে এক পুলিশ সদস্যকে গ্রেপ্তার করেছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। মঙ্গলবার ঢাকার কর্মস্থল থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে যশোরের বেনাপোল থানার ওসি মামুন খান জানান।

deb prosad police

গ্রেপ্তার সাহা ঢাকার উত্তরা ১ নম্বর আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নে (এপিবিএন) কনস্টেবল পদে কর্মরত আছেন।

ওসি মামুন খান জানান, ২০১৬-১৭ সালে দেব প্রসাদ বেনাপোল সীমান্তের ইমিগ্রেশন পুলিশের কনস্টেবল ছিলেন। ওই সময় তার বিরুদ্ধে ভারতে তথ্য পাচারের অভিযোগ ওঠে।

সেই অভিযোগের তদন্ত চলাকালে তাকে ঢাকায় এপিবিএনে বদলি করা হয়। পরে তদন্তে তার বিরুদ্ধে অভিযোগের সত্যতা পাওয়ায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ওসি বলেন, ঢাকার কর্মস্থল থেকে গ্রেপ্তারের পর তাকে বেনাপোল পোর্ট থানায় নেওয়া হয়। পরে আদালতের হাজির করা হলে আগামী ১৯ ডিসেম্বর রিমান্ড শুনানির দিন ধার্য করে তাকে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেওয়া হয়।

দেব প্রসাদ সাহা খুলনার তেরখাদা উপজেলা সদরের সুরেন্দ্রনাথ সাহার ছেলে।

একটি সূত্র বলছে, ইমিগ্রেশনে দায়িত্ব পালনকালে সেনাবাহিনীর অফিস সহকারী আবু হানজালা রানা ও সৈনিক শাহনেওয়াজ শাহিনের সঙ্গে দেব প্রসাদের পরিচয় ও সুসম্পর্ক গড়ে ওঠে। তারা দুইজন বেনাপোলে মাঝেমধ্যে এসে ভারতের এস চক্রবর্তী ও পিন্টু নামে দুইজনের কাছে বাংলাদেশের গোপনীয় ও গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাচার করতো।

২০১৮ সালের শেষের দিকে দেব প্রসাদ সাহা বাংলাদেশের গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সম্বলিত একটি পেনড্রাইভ নোম্যানস ল্যান্ড পার হয়ে ভারতে পাচার করে। ১৫ দিন পর আবু হানজালা রানার কাছ থেকে এনে আবারো একটি গুরুত্বপূর্ণ তথ্য সম্বলিত পেনড্রাইভ ভারতের এস চক্রবর্তী ও পিন্টুর কাছে হস্তান্তর করে দেব প্রসাদ সাহা।

গত ২৫ অক্টোবর ঢাকার কমলাপুরের একটি হোটেল থেকে ডিজিএফআই ও র্যা বের হাতে সৈনিক শাহানেওয়াজ শাহিন আটক হয়। এ সময় তার কাছ থেকে গুরুত্বপূর্ণ একটি পেনড্রাইভ উদ্ধার হয় এবং ভারতের কাছ তথ্য পাচারের বেশ কিছু তথ্য দেয় সে। এর পরই দেবকে গ্রেপ্তার করা হয়।

sheikh mujib 2020