advertisement
আপনি দেখছেন

সম্প্রতি মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে প্রথম ধাপে প্রকাশ করা রাজাকারদের তালিকায় বিভিন্ন মুক্তিযোদ্ধাদের নাম আসায় মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আ কম মোজাম্মেল হক ও সচিব এস এম আরিফ-উর-রহমানকে আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে দেশ ও জাতির কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করার জন্য লিগ্যাল নোটিশ পাঠানো হয়েছে।

akm mojammel haque

বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট এস এম জুলফিকার আলী জুনু ডাক ও রেজিস্ট্রি ডাক যোগে মন্ত্রী ও সচিব বরাবর এ নোটিশ পাঠান।

নোটিশে বলা হয়, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রকাশিত একাত্তরের দেশ ও স্বাধীনতাবিরোধী রাজাকারদের তালিকায় দেশের জন্য যুদ্ধ করা স্বাধীনতাকামী বিভিন্ন মুক্তযোদ্ধার নাম প্রকাশ পায়। যা সকল মুক্তিযোদ্ধাদের হৃদয়ে আঘাত হেনেছে এবং এর দ্বারা তাদের প্রতি অসম্মান করা হয়েছে।

নোটিশে আরো বলা হয়, সংবিধান লঙ্ঘন করে মুক্তিযোদ্ধাদের এমন চরিত্র হননের জন্য আগামী ২৪ ঘণ্টার মধ্যে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী ও সচিবকে দেশ ও জাতির কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করতে হবে। তা না হলে দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

উল্লেখ্য, গত রোববার প্রথম ধাপে ১০ হাজার ৭৮৯ জন রাজাকারের তালিকা প্রকাশ করে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়। কিন্তু তালিকাটি প্রকাশের পর পরই এটি নিয়ে বিতর্কের সৃষ্টি হয়। কারণ তাতে রাজাকারদের পাশাপাশি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সহপাঠী ও বন্ধু মজিবুল হকসহ বিভিন্ন স্বাধীনতাকামী মুক্তিযোদ্ধার নাম দেখতে পাওয়া যায়।

বিষয়টি নিয়ে দেশব্যাপী ব্যাপক সমালোচনা শুরু হলে মঙ্গলবার এক অনুষ্ঠানে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক দুঃখ প্রকাশ করেন। এরপর বুধবার মন্ত্রণালয় থেকে তালিকাটি স্থগিত করে জানানো হয়, যাচাই-বাছাই করে পরবর্তীতে ফের তালিকা প্রকাশ করা হবে।