advertisement
আপনি দেখছেন

ব্রাহ্মবাড়িয়ার নবীনগর পৌর এলাকার আলমনগর ১ ও ২নং ওয়ার্ডের মানুষের চলাচলের জন্য নির্মিত ব্রিজটি যেন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। ২৫ বছর আগে নির্মিত ব্রিজটি গত এক যুগ ধরে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে আছে।

bridge destroy bbaria

এ সেতুর ওপরে গাড়ি নিয়ে উঠতে গিয়ে এ পর্যন্ত কমপক্ষে সাত জন প্রাণ হারিয়েছেন বলে স্থানীয়রা দাবি করেছেন। তাদের অভিযোগ, ভাঙা ব্রিজটিতে গাড়ি উঠার সময় প্রায়ই দুর্ঘটনা ঘটে। ফলে মৃত্যুর ঘটনা তো ঘটছে। পাশাপাশি বহু লোক পঙ্গুত্ব বরণ করে মানবেতর জীবন যাপন করছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, প্রতিদিন ভাঙা ও অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ এ সেতুটির ওপর দিয়ে এলাকার হাজার হাজার মানুষ যাতায়াত করে থাকেন। প্রায় দুই যুগ আগে নির্মিত সেতুটির বিভিন্ন স্থান থেকে পলেস্তরা উঠে গিয়ে মারাত্মক ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। পাশাপাশি সরু এই সেতুর দুই পাশের রেলিং সম্পূর্ণ ভেঙে যাওয়ায় যাত্রীবাহী সকল যানবাহনকে অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে চলাচল করতে হয়।

এলাকার কাউন্সিলর আবু হানিফ বলেন, ৯৫-৯৬ সালের দিকে ভাটা নদীর ওপর সেতুটি নির্মিত হয়। বর্তমানে এ সেতুর বিভিন্ন অংশ ভেঙে যাওয়ায়, মারাত্মক ঝুঁকি নিয়ে এলাকার মানুষ এই সেতুর ওপর দিয়ে যাতায়াত করছেন। সেতুটিতে যানবাহন উঠলে কেঁপে উঠে। যে কোনো সময় এটি ভেঙে পড়তে পারে।

এ ব্যাপারে নবীনগর পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র শিব শংকর দাস বলেন, সেখানে আরেকটি ব্রিজ নির্মাণে দ্রুতই প্রকল্প গ্রহণ করা হবে। ইউএনবি।