advertisement
আপনি দেখছেন

রাষ্ট্রীয় তেল-গ্যাস অনুসন্ধান ও উত্তোলন কোম্পানি বাপেক্সের বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক সালিশি আদালতে যাওয়ার হুমকি দিয়েছে আজারবাইজানের ‘সকার একিউএস ইন্টারন্যাশনাল ডিএমসিসি’। বিদেশি এ তেল-গ্যাস উত্তোলনকারী কোম্পানি এক চিঠিতে বলেছে, একাধিকবার চেষ্টার পরেও বাপেক্সের সঙ্গে বিরোধ নিষ্পত্তি করা যায়নি। ফলে এ বিরোধ মীমাংসা না করলে আন্তর্জাতিক আদালতে যাবে সকার।

bapex socar

চিঠিটি গত ১৬ ডিসেম্বর প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরীকে দেয়া হয়েছে। সকার অভিযোগ, চুক্তিতে তিনটি কূপ খননের কথা থাকলেও একটি খনন করা এবং অন্যদুটিতে খননে সহায়তা না করা হচ্ছে না। এ বিরোধ নিষ্পত্তি করে যাবতীয় পাওনা পরিশোধের অনুরোধ জানানো হয়েছে চিঠিতে।

তবে বাপেক্সের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, চুক্তি অনুযায়ী সকারের কাজেও অনেক ত্রুটি রয়েছে। তবে আলোচনার মাধ্যমে স্থানীয়ভাবে এ সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চলছে বলে জানিয়েছেন জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

এদিকে জ্বালানি বিভাগের কর্মকর্তারা জানান, এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে আজ রোববার জ্বালানি বিভাগের কর্মকর্তারা বৈঠকে বসছেন। এতে সকারের চারজন প্রতিনিধির উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে।

এর আগে গত অক্টোবরে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আজারবাইজান সফরের সময় বিষয়টি সামনে এনে সমাধানের জন্য দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়। তখন প্রধানমন্ত্রী সংশ্লিষ্টদের এ সংক্রান্ত নির্দেশনা দেন। পরে দেশটির জ্বালানি মন্ত্রীর সঙ্গে বাংলাদেশের বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী একটি বৈঠকও করেন।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের জুলাই মাসে তিনটি গ্যাস কূপ খননের জন্য সকারের সঙ্গে চুক্তি করে বাপেক্স। কূপ তিনটি হলো- খাগড়াছড়ির সেমুতাং-১, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জ-৪ ও জামালপুরের মাদারগঞ্জ-১।