advertisement
আপনি দেখছেন

ছাত্রলীগ ও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীদের বর্বর হামলায় ডাকসু ভিপি নুরুল হক নুরসহ ৪ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (ঢামেক) আইসিইউতে রাখা হয়েছে। এদের মধ্যে তুহিন ফারাবির অবস্থা অত্যন্ত সংকটাপন্ন। বাকি দুইজন হলেন নুরের ছোটভাই আমিনুর ও জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র এপিএম সোহেল।

vp noor icu

বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢামেক ক্যাজুয়ালটি ব্লকের আবাসিক সার্জন মো. আলাউদ্দিন বলেন, তুহিন ফারাবির শরীরে খিচুনি হচ্ছে। তাকে এখন লাইফ সাপোর্ট দিয়ে রাখা হয়েছে। বাকিদের জরুরি বিভাগে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছে। তাদের শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন পাওয়া গেছে।

এদিকে, হামলার প্রতিবাদে আগামীকাল সোমবার সারাদেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ।

এর আগে, রোববার বেলা পৌনে ১টার দিকে ডাকসুতে ঢুকে ছাত্রলীগ ও মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের নেতাকর্মীরা লাঠিসোটা নিয়ে ভিপি নুরুল হক নুরের ওপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার পরিষদের ২৪ জন নেতাকর্মী মারাত্মকভাবে আহত হন।

হামলাকারীরা ডাকসুর ভেতরে ভাঙচুর চালায় এবং বাইরে থেকে ইট-পাটকেল ছোঁড়ে। বাধা দিতে গেলে ডাকসুর সদস্য ও ছাত্রলীগ নেতা রাকিবুল ইসলাম ঐতিহ্যকেও শিবির আখ্যা দিয়ে লাঞ্ছিত করা হয়।

vp noor icu2

জানা যায়, হামলায় মুক্তিযুদ্ধ মঞ্চের একাংশের সভাপতি আমিনুল ইসলাম বুলবুলের নেতৃত্বে সংগঠনটির অর্ধশতাধিক নেতাকর্মী অংশ নেন। পরে তাদের সঙ্গে যোগ দেন ঢাবির সূর্যসেন হল সংসদের ভিপি মারিয়াম জামান সোহান ও জিএস সিয়াম। তারা লাঠিসোটা নিয়ে ভিপি নুর ও তার লোকজনদের মারধর করে।

একপর্যায়ে ভিপি নুর ও তাঁর সঙ্গীরা ভেতর থেকে দরজার ছিটকিনি বন্ধ করে আত্মরক্ষার জন্য সেখানেই অবস্থান করেন। পরে প্রক্টর ও সহকারী প্রক্টর এসে তাঁদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান।