advertisement
আপনি দেখছেন

নারায়ণগঞ্জের রান্নাঘরে জমে থাকা গ্যাসের আগুনে একই পরিবারের আটজন দগ্ধ হয়েছেন। এর মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়েছে।

narayangonj burn dmch

আজ সোমবার ভোর ৫টার দিকে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার সাহেব পাড়া এলাকার একটি পাঁচতলা ভবনের নিচ তলার বাসায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় দগ্ধরা হলেন- কিরণ মিয়া (৪৫), আবুল হোসেন (২৫), হিরণ মিয়া (২৫), কাউসার মিয়া (১৬), মুক্তা আক্তার (২০), ইলমা আক্তার (৩), নুর জাহান (৬০) ও আপন (১০)।

চিকিৎসকের বরাত দিয়ে ঢামেক হাসপাতালের পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ এসআই বাচ্চু মিয়া জানান, দগ্ধদের মধ্যে পাঁচজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাদের মধ্যে কিরণ মিয়ার শরীরের ৭০ শতাংশ, আবুল হোসেনের ৪৫ শতাংশ, হিরণ মিয়ার ২২ শতাংশ, কাউসারের ২৫ শতাংশ, মুক্তার ১৫ শতাংশ, ইলমার ১৪ শতাংশ, নুরজাহানের ৯০ শতাংশ ও আপনের ২০ শতাংশ পুড়ে গেছে।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের উপ-পরিচালক আব্দুল্লাহ আল আরেফীন জানান, বাড়িটির নিচতলায় পরিবারটি ভাড়া থাকত। ধারণা করা হচ্ছে, রাতে রান্নার চুলা বন্ধ না করে তারা ঘুমিয়ে পড়েন। ফলে চুলা থেকে গ্যাস বের হয়ে ঘরের ভেতরে জমে থাকে। ভোরে রান্না করতে গিয়ে গ্যাসের চুলায় আগুন ধরাতে গেলে জমে থাকা গ্যাসে আগুন ধরে যায়। এতে পরিবারের আটজন সদস্য দগ্ধ হন।

স্থানীয়রা তাদের উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে ভর্তি করেন বলেও জানান এই কর্মকর্তা।

sheikh mujib 2020