advertisement
আপনি দেখছেন

চীনের বাইরে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে প্রাণঘাতী কোভিড-১৯ ভাইরাস (করোনাভাইরাস) ছড়িয়ে পড়ায় আতঙ্কে প্রতিদিনই দেশে ফিরছেন প্রবাসীরা। তাদের নিয়ে বিভিন্ন ধরনের গুজবও ছড়ানো হচ্ছে প্রতিনিয়ত। ফলে নিজ নিজ এলাকায় বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখে পড়ছেন এসব প্রবাসী।

relation breakup pic

তেমনি একজন সিঙ্গাপুর ফেরত প্রবাসী আব্বাস আলী। তার বাড়ি টাঙ্গাইলের বাসাইল উপজেলার কাশীল ইউনিয়নের দেউলী মধ্যপাড়ায়। সম্প্রতি সিঙ্গাপুর থেকে ফেরার পর তাকে নিয়ে এলাকায় গুজব ছাড়ানো হয়, তিনি করোনাভাইরাস আক্রান্ত। তাই তার স্ত্রী মাকসুদা আক্তার তাকে ছেড়ে চলে গেছেন। এ নিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতির মুখে পড়েন আব্বাস। যদিও শেষ পর্যন্ত এ গুজবের অবসান ঘটে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষার মাধ্যমে।

আব্বাস আলী গণমাধ্যমকে জানান, গত ১৩ ফেব্রুয়ারি সিঙ্গাপুর থেকে দেশে ফিরেন তিনি। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে তার সর্বোচ্চ পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়। কোভিড-১৯ ভাইরাসের কোনো ধরনের লক্ষণ ধরা না পড়ায় বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ তাকে বাড়ি যাওয়ার অনুমতি দেন। কিন্তু বাড়ি ফেরার পরের দিন বাজারে গেলে কিছু মানুষ তার নামে গুজব ছড়াতে শুরু করে।

তারা মিথ্যা অভিযোগ করে বলে, তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত। তাই তার স্ত্রী তাকে ছেড়ে চলে গেছে। পরে গত রোববার এমন গুজবের ভিত্তিতে বাসাইল উপজেলা প্রশাসনের একটি গাড়ি এসে তাকে বাসাইল হাসপাতালে নিয়ে যায়। এরপর সেখান থেকে টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে তার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হয়। কিন্তু তার শরীরে করোনাভাইরাসের কোনো ধরনের লক্ষণ ধরা না পড়ায় তাকে ছেড়ে দেওয়া হয়।

covid 19 virus image

অন্যদিকে, আব্বাসের স্ত্রী মাকসুদা আক্তার বলেন, সিঙ্গাপুর থেকে ফেরার পর কিছু লোক তার স্বামীকে জড়িয়ে বাজারে গুজব ছড়াচ্ছে। আর এর ফলে আত্মীয়-স্বজনরা তাকে জিজ্ঞেস করছেন, তিনি স্বামীর সংসার ছেড়ে চলে এসেছেন কি-না? অথচ তিনি তার স্বামীর সঙ্গে সুখেই ঘর করছেন।

এ বিষয়ে বাসাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামছুননাহার স্বপ্না বলেন, এলাকায় আতঙ্ক ছড়ানোয় আব্বাসকে হাসপাতালে নিয়ে পরীক্ষা করা হয়েছে। তার শরীরে করোনা ভাইরাসের কোনো লক্ষণ পাওয়া যায়নি। তবে আরো ভালোভাবে পরীক্ষার জন্য তাকে ঢাকায় যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

এর আগে গত ১০ ফেব্রুয়ারি সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার পদ্মপুকুর ইউনিয়নের পাতাখালী গ্রামের ছেলের করোনাভাইরাস হয়েছে- এমন গুজবে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান রেণুকা রপ্তান (৫৬) নামের এক নারী।

উল্লেখ্য, সিঙ্গাপুরে এখন পর্যন্ত পাঁচ বাংলাদেশি নাগরিক কোভিড-১৯ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তাদের দেশটির বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। তার সবাই একই কোম্পানিতে কাজ করতেন। তবে বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়নি।

sheikh mujib 2020