advertisement
আপনি দেখছেন

আজ অমর ২১শে ফেব্রুয়ারি। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ১৯৫২ সালের এই দিনে বাংলাকে রাষ্ট্র ভাষা হিসেবে স্বীকৃতি আদায়ের দাবিতে রাজপথে বুকের তাজা রক্ত ঢেলে দিয়েছিলেন সালাম, রফিক, জব্বার, বরকত, সফিউরসহ বাংলার দামাল ছেলেরা।

21 february image

মাতৃভাষার জন্য এমন আত্মত্যাগের ঘটনা শুধু বাংলাদেশেই ঘটেছে। ১৯৭১ সালে রক্তক্ষয়ী যে যুদ্ধের মাধ্যমে পরাধীনতার শৃঙ্খল ভেঙ্গে স্বাধীনতা অর্জন করেছিল বাঙ্গালী জাতি, তার সূচনা হয়েছিল আজকের এই দিনেই। ১৯৫২ সালের ২১শে ফেব্রুয়ারি মাতৃভাষা বাংলার মর্যাদা রক্ষায় আন্দোলন করতে গিয়ে শহীদ হন অনেকে। আর তাদের রক্তের বিনিময়েই শৃঙ্খলমুক্ত হয় মাতৃভাষা বাংলা।

বাংলাভাষার মর্যাদা রক্ষায় বাঙালি জাতি ওই দিন যে আত্মত্যাগ ও সংগ্রামের সূচনা করেছিল, সে পথ ধরেই স্বাধীন হয় বাংলাদেশের ভূখণ্ড। তাই একুশে ফেব্রুয়ারি মিশে আছে বাঙালি জাতির সত্ত্বায়। এ দিনটিতে পুরো জাতি পরম শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করে মহান ভাষা শহীদদের।

একুশের প্রথম প্রহরেই শহীদ মিনারে ফুল দিয়ে ভাষার জন্য আত্মত্যাগ করা শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানায় পুরো জাতি। মনের অজান্তেই সকলে গেয়ে ওঠেন- 'আমার ভাইয়ের রক্তে রাঙানো একুশে ফেব্রুয়ারি/ আমি কি ভুলিতে পারি...।'

২১ ফেব্রুয়ারি শুধু বাংলাদেশ নয়, শ্রদ্ধাভরে দিনটি পালন করে গোটাবিশ্ব। ১৯৯৯ সালের ১৭ নভেম্বর জাতিসংঘ ২১শে ফেব্রুয়ারিকে 'আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস' হিসেবে স্বীকৃতি দেয়। এরপর থেকে প্রতিবছর সারাবিশ্ব বাঙালি জাতির আত্মত্যাগের এ দিনটিকে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস হিসেবে শ্রদ্ধাভরে পালন করে আসছে।