advertisement
আপনি দেখছেন

আজ আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। ১৯৫২ সালের এই দিনে বাংলাকে ভালোবেসে প্রাণ দিয়েছিলেন সালাম-রফিক-বরকতসহ নাম না জানা আরো অনেকে। ভাষার জন্য আত্মত্যাগের ঘটনা বিশ্বে এটাই প্রথম ও একমাত্র। তাই তো অনেক বিদেশিরাও বাংলাকে ভালোবেসেছেন। এই দেশে এসে চিরস্থায়ীভাবে বসবাস করছেন।

lucio beninat italian1

তাদের মধ্যে একজন ইতালির নাগরিক লুসিও বেনানিতি। ৬৪ বছর বয়সী এই ব্যক্তি বিশ বছর আগে বাংলাদেশে এসেছিলেন। এরপর আর নিজ দেশে ফিরে যাননি, এখানেই থেকে গেছেন। এই দেশের ভাষা ও সংস্কৃতিকে ভালোবেসেছেন। শিখেছেন বাংলা, লিখতে, বলতে এমনকি গাইতেও পারেন।

সম্প্রতি ডয়সে ভেলেকে দেয়া সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন, বাংলা ও বাংলাদেশকে নিয়ে তার ভালো লাগার কথা। তিনি বলেন, ‘ভাষা হচ্ছে ভালোবাসা প্রকাশের একটি মাধ্যম। এই দেশের মানুষ ভাষার জন্য প্রাণ দিয়েছেন। তাই বাংলার প্রতি একটা ভালো লাগা কাজ করে। এখন প্রয়োজন ছাড়া অন্য কোনো ভাষাতে কথা বলা হয় না। সকল কাজে বাংলা ব্যবহার করি।’

জানিয়েছেন বাংলা ভাষা শেখার পেছনের গল্পও। তিনি বলেন, ‘ভাষা শেখার জন্য কোনো প্রতিষ্ঠানে যেতে হয়নি, নিজেই চর্চা করে শিখেছি। শুরুর দিকে বাংলাদেশি বন্ধুদের সহায়তা নিতে হয়েছে। এরপর নিজে নিয়মিত চর্চা করেছি। কারণ যাদের ভালোবাসি তাদের ভাষা না জানলে তা প্রকাশ করবো কীভাবে?’

lucio beninat italian

এই ইতালিয়ান বলেন,‘কষ্ট লাগে, যখন দেখি এই দেশের মানুষরা বাংলা বলতে গিয়ে ইংরেজি শব্দ ব্যবহার করেন। অনেকে রেগে গিয়েও ইংরেজি বলেন। তারা মনে করেন ইংরেজিতে কথা বললে গুরুত্ব বাড়ে।’

প্রায় বিশ বছর আগে বাংলাদেশে এসেছেন লুসিও বেনানিতি। এরপর থেকে ঢাকার বস্তি আর পথশিশুদের নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন। নিজ উদ্যোগে তাদের শিক্ষা, খাবার ও খেলাধুলার ব্যবস্থা করেন।

sheikh mujib 2020