advertisement
আপনি দেখছেন

গতকাল বুধবার রাতে টাঙ্গাইল ও লক্ষ্মীপুরে র‍্যাব ও পুলিশের সঙ্গে এক বন্দুকযুদ্ধে তিনজন নিহত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে। র‍্যাব ও পুলিশের ভাষ্যমতে, টাঙ্গাইলে নিহত দুজন নিষিদ্ধ চরমপন্থী দলের সদস্য ও লক্ষ্মীপুরে নিহত ব্যক্তিটি একজন সন্ত্রাসী ছিলেন।

crossfire

টাঙ্গাইলে নিহত দুজনের নাম ফজলু ড্রাইভার (৩০) ও উজ্জ্বল (২১)। এবং লক্ষ্মীপুরে নিহত ব্যক্তিটির নাম মো. কাউসার (৪০)।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, টাঙ্গাইলের সদর উপজেলার জুগনিহাট এলাকায় গোপন সূত্রের ভিত্তিতে র‍্যাব অভিযান চালায়। এ সময় চরমপন্থী দলের সদস্যরা র‍্যাবের উপস্থিতি টের পেয়ে গুলি ছুড়লে র‍্যাবও পাল্টা গুলি ছুড়তে বাধ্য হয়। বন্দুকযুদ্ধ শেষে ঘটনাস্থল থেকে ফজলু ড্রাইভার ও উজ্জ্বলের লাশ উদ্ধার করে র‍্যাব।

ফজলু ড্রাইভারের নামে নামে টাঙ্গাইল সদর থানায় ২০টি হত্যা মামলা রয়েছে বলে জানিয়েছে র‍্যাব-৩ এর কোম্পানি কমান্ডার মহিউদ্দিন ফারুকী। উজ্জ্বল তাঁর সহযোগী ছিলো বলে জানায় র‍্যাব। ঘটনাস্থল থেকে একটি রিভলবার, সাতটি গুলি ও একটি ম্যাগাজিন উদ্ধার করা হয়েছে।

এদিকে লক্ষ্মীপুরে সদর উপজেলার বড়কুল এলাকায় পুলিশ অভিযান চালালে সন্ত্রাসীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। পুলিশ পাল্টা গুলি ছুড়লে মো. কাউসার গুলিবিদ্ধ হন এবং হাসপাতালে নেয়ার পর মারা যান।

নিহত কাউসারকে পুলিশ সন্ত্রাসী হিসেবে চিহ্নিত করলেও স্থানীয় লোকজন জানান, কাউসার ইউনিয়ন যুবদলের কর্মী ছিলেন।

 

আপনি আরও পড়তে পারেন

মিরপুরে এক পরিবারের চারজন অ্যাসিডদগ্ধ

অ্যামেনেস্টি: চাপে রয়েছে বাংলাদেশের নিরপেক্ষ মিডিয়া

বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে পান্তা- ইলিশ নিষিদ্ধ

ওসমান ফারুক: প্রধানমন্ত্রীকে হেলিকপ্টার ব্যবহার করার অনুরোধ জানাই

sheikh mujib 2020