advertisement
আপনি দেখছেন

মানিকগঞ্জে একটি ওয়াজ মাহফিলে ভুল করে কীটনাশক ফুরাডান দিয়ে বানানো চা পান করে অসুস্থ হয়ে পড়েছেন ১৩ জন মুসল্লি। এ ঘটনায় স্থায়ীরা ক্ষুব্ধ হয়ে ওই চা দোকানদারকে জোর করে একই চা পান করালে তিনিও অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে অসুস্থ সবাইকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করানো হয়। তারা সকলেই শঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

13 ill to drink tea

শুক্রবার রাতে সাটুরিয়া উপজেলার বালিয়াটি ইউনিয়নের ভাঙ্গাবাড়ি গ্রামের ঈদগাহ মাঠে আয়োজিত ওয়াজ মাহফিলে এ ঘটনা ঘটে। ওয়াজ মাহফিলটি এলাকার যুব সমাজের উদ্যোগে আয়োজন করা হয়।

জানা যায়, ওই ওয়াজ মাহফিলে স্থানীয় মুন্নাফ আলী নামের এক ব্যক্তি একটি অস্থায়ী চায়ের দোকান দেন। রাত সাড়ে ৯টার দিকে দোকানে চা পাতা শেষ হয়ে গেলে তিনি বাড়ি থেকে ভুল করে কীটনাশক ফুরাডানের প্যাকেট নিয়ে আসেন এবং তা চা পাতার বদলে গরম পানিতে ঢেলে দেন। পরে সে চা পান করে ওয়াজ শুনতে আসা ১২ জন মুসল্লি অসুস্থ হয়ে পড়েন।

এ ঘটনায় স্থানীয়রা ক্ষুব্ধ হয়ে ওই চা দোকানদারকে মারধর করেন এবং জোর করে একই চা পান করান। এতে তিনিও অসুস্থ হয়ে পড়েন। পরে অসুস্থ ওই ১২ মুসল্লিকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এবং চা দোকানদারকে জেলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

এ বিষয়ে বালিয়াটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. রুহুল আমীন জানান, তিনি বিষয়টি শুনেছেন।

সাটুরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. মো. মনিরুজ্জামান জানান, চা পান করার পর বিষক্রিয়ার কারণে তারা অসুস্থ হয়েছেন। তবে ঠিক কি ধরনের বিষক্রিয়া হয়েছে তা পরীক্ষা করা ছাড়া বলা যাবে না। অসুস্থদের মধ্যে পাঁচজন প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে বাড়ি চলে গেছেন এবং বাকি আটজন হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তবে তারা সকলেই বর্তমানে সুস্থ আছেন।