advertisement
আপনি দেখছেন

বাগেরহাট-৪ আসনের উপনির্বাচনে বিএনপি মনোনীত কাজী খায়রুজ্জামান শিপন এবং জাতীয় পার্টি (এরশাদ) মনোনীত সাজন কুমার মিস্ত্রীর মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

al candidate in bagerhat

ঋণ ও পৌর কর পরিশোধ না করায় রোববার জেলা নির্বাচন কার্যালয়ে যাচাইবাছাই শেষে রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. ইউনুচ আলী তাদের মনোনয়নপত্র বাতিলের ঘোষণা দেন।

অন্যদিকে, আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আমিরুল আলম মিলনের মনোনয়নপত্র বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে। ফলে এই আসনের উপনির্বাচনে মিলনের কোনো প্রতিদ্বন্দ্বী রইল না।

তবে বিএনপি ও জাপার ওই দুই প্রার্থী আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে নির্বাচন কমিশনে আপিল করতে পারবেন। আপিলের তিন কার্যদিবসের মধ্যে কমিশন তাদের প্রার্থিতার চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে।

সংশ্লিষ্ট রিটার্নিং কর্মকর্তা খুলনা আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা মো. ইউনুচ আলী বলেন, জাতীয় পার্টি মনোনীত প্রার্থী সাজন কুমার মিস্ত্রীর ব্যাংকে ঋণ রয়েছে এবং বিএনপি মনোনীত প্রার্থী কাজী খায়রুজ্জামান শিপনের ব্যাংক ঋণ ও পৌর কর বকেয়া রয়েছে। এ জন্য তাদের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

তবে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী অ্যাডভোকেট আমিরুল আলম মিলনের মনোনয়ন বৈধ ঘোষণা করা হয়েছে বলে জানান তিনি।

তিনি জানান, মনোনয়নপত্র বাতিল হওয়া দুইজন আগামী ২৯ ফেব্রুয়ারির মধ্যে নির্বাচন কমিশনে আপিল করতে পারবেন।

উল্লেখ্য, গত ১০ জানুয়ারি বাগেরহাট-৪ আসনের সংসদ সদস্য ডা. মোজাম্মেল হোসেনের মৃত্যু হলে আসনটি শূন্য হয়। গত ৬ ফেব্রুয়ারি নির্বাচন কমিশন উপনির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করে। ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী আগামী ২১ মার্চ এই আসনে ভোট গ্রহণের কথা রয়েছে।

sheikh mujib 2020