advertisement
আপনি দেখছেন

ঐতিহাসিক ৭ মার্চকে জাতীয় দিবস হিসেবে ঘোষণা করে রায় দিয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী এক মাসের মধ্যে এ সংক্রান্ত গেজেট প্রকাশ করতেও বলা হয়েছে। মঙ্গলবার এ আদেশ দেন বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ।

bangladesh high court new 2019

এর আগে ২০১৭ সালের ২০ নভেম্বর হাইকোর্টে এ সংক্রান্ত একটি রুল জারি করেন বিচারপতি কাজী রেজাউল হক ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ।

সেখানে উল্লেখ করা হয়, ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ ঐতিহাসিক রেসকোর্স ময়দানে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাষণ দেয়ার দিনটিকে কেনো জাতীয় দিবস ঘোষণা করা হবে না এবং যেখানে দাঁড়িয়ে তিনি ভাষণ দিয়েছিলেন সেই স্থানটিতে কেনো বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য স্থাপন করা হবে না।

রুলে পরবর্তী তিন সপ্তাহের মধ্যে মন্ত্রিপরিষদ সচিব, অর্থ সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, শিক্ষা সচিব, গণপূর্ত সচিব, সংস্কৃতি সচিবকে জবাব দিতে বলা হয়েছিল।

ওইদিন রুল জারির পর অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম গণমাধ্যমকে বলেছিলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ৭ মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে (তৎকালীন রেসকোর্স ময়দান) ভাষণ দিয়েছিলেন। দিনটিকে জাতীয় দিবস হিসেবে কেনো ঘোষণা করা হবে না এবং মঞ্চটি পুনর্নির্মাণে কেনো নির্দেশ দেয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করা হয়েছে।

পরে এর পক্ষে রিট আবেদন করেন সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবী ড. বশির আহমেদ।