advertisement
আপনি দেখছেন

সিঙ্গাপুরে করোনায় আক্রান্ত বাংলাদেশি প্রবাসীদের মধ্যে দুইজন সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন। আজ শনিবার রাজধানীর মহাখালীতে আইইডিসিআরের নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন সংস্থাটির পরিচালক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা।

mirzadi flora

তিনি বলেন, আজ আমাদের জন্য একটি আনন্দের সংবাদ আছে। তা হচ্ছে- সিঙ্গাপুরে ভাইরাসে আক্রান্ত আরো একজন আজ সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন। এ নিয়ে দুইজন সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছাড়লেন।

প্রসঙ্গত, গতকাল শুক্রবার আরো এক বাংলাদেশি প্রবাসী সিঙ্গাপুরের এক হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেয়েছেন।

সেব্রিনা ফ্লোরা বলেন, আক্রান্ত অন্য বাংলাদেশিরা এখনো স্থিতিশীল অবস্থায় আছেন। যার অবস্থা আশঙ্কাজনক ছিল, তার অবস্থা এখনো অপরিবর্তনীয়। তিনি ছাড়া বাকিরা যেকোনো সময় হাসপাতাল থেকে ছাড় পেতে পারেন।

এদিকে, করোনাভাইরসের কারণে শনিবার পর্যন্ত মারা গেছেন ২ হাজার ৮৭২ জনেরও বেশি। বিশ্বব্যাপী আক্রান্ত হয়েছে প্রায় ৮৪ হাজার মানুষ। সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, ৫৭ দেশে এই ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে। গতকাল শুক্রবারই ইউরোপ, আমেরিকা ও আফ্রিকার ছয়টি দেশে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে।

লাতিন আমেরিকার দেশ মেক্সিকো, আফ্রিকার দেশ নাইজেরিয়া, ইউরোপের ডেনমার্ক, নেদারল্যান্ডস ও লিথুয়ানিয়ায় প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাস আক্রান্তের সন্ধান পাওয়া গেছে। এর সবগুলো ঘটনার সঙ্গেই পাওয়া গেছে ইতালির যোগাযোগ। ইউরোপের দেশগুলোর মধ্যে ইতালির অবস্থাই সবচেয়ে খারাপ। সেখানে ৬৫০ জনের শরীরে সংক্রমণ ধরা পড়েছে, মৃত্যু হয়েছে ১৭ জনের।

চীনের বাইরে সবচেয়ে বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে দক্ষিণ কোরিয়ায়। সেখানে ২ হাজার ৩৩৭ জনের মধ্যে সংক্রমণ ঘটেছে, মৃত্যু হয়েছে ১৬ জনের।

তবে চীনের বাইরে মৃত্যুর সংখ্যা সবচেয়ে বেশি ইরানে। সেখানে আক্রান্ত হয়েছে ৩৮৮ জন, প্রাণ গেছে ৩৪ জনের। যদিও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম দাবি করেছে, দেশটিতে ২১০ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে ইরানের নারী ও পরিবার বিষয়ক ভাইস-প্রেসিডেন্ট মাসুমে এবতেকারও আছেন বলে দেশটির গণমাধ্যমগুলো নিশ্চিত করেছে।

এর বাইরে জাপানে ১১ জন, হংকং ও ফ্রান্সে দুজন করে এবং ফিলিপাইন ও তাইওয়ানে একজন করে মানুষের মৃত্যু হয়েছে। চীনের বাইরে আক্রান্তের সংখ্যা বাড়তে বাড়তে এখন মোট আক্রান্তের এক তৃতীয়াংশে দাঁড়িয়েছে।

sheikh mujib 2020