advertisement
আপনি দেখছেন

গত কয়েকবছরে দেশ থেকে পাঁচ লাখ হাজার কোটিরও বেশি টাকা বিদেশে পাচার হয়ে গেছে বলে দাবি করেছেন বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টি সভাপতি রাশেদ খান মেনন। শনিবার রাজশাহীর ঐতিহাসিক আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে আয়োজিত এক জনসভায় অংশ নিয়ে তিনি এ দাবি করেন।

menon speach newবাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টি সভাপতি রাশেদ খান মেনন

রাশেদ খান মেনন বলেন, এক টাকা দুই টাকা নয়, ২০১৪ সালে দেশ থেকে প্রায় ৭৬ হাজার কোটি টাকা বিদেশে পাচার হয়ে গেছে। গত কয়েকবছরে সেই পরিমাণটা বেড়ে দাঁড়িয়েছে প্রায় পাঁচ লক্ষ হাজার কোটি টাকারও বেশি। এই টাকাগুলো দিয়ে দেশের একবছরের বাজেট করা সম্ভব।

তিনি বলেন, ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় পাকিস্তানিরাও এত টাকা নিয়ে যায়নি, যত টাকা গত কয়েকবছরে পাচার হয়েছে। অথচ দুদক এসব নিয়ে কথা বলে না।

সংসদে যখন ঋণ খেলাপিদের নাম প্রকাশ করা হয় তখন একইসঙ্গে টাকা পাচারকারীদের নাম প্রকাশ করতে হবে দাবি করে তিনি বলেন, তখন দেখা যাবে অনেক পরিচিত লোকও এর মধ্যে আছেন। এজন্যই সরকার পাচারকারীদের নাম প্রকাশ করে না।

সাবেক এই মন্ত্রী বলেন, ১৯৭৪ সালে বাংলাদেশে কোটিপতি ছিল মাত্র চারজন। আর তা এখন বেড়ে দাঁড়িয়েছে এক লক্ষ ২২ হাজারে। তাদের জীবনযাপন, আয়েশ, বিলাস দেশের যুবকদের হতাশ করছে। সকল ক্ষেত্রেই এমন বৈষম্য দেখা দিয়েছে। দেশের মাথাপিঁছু আয় ১৯০৯ ডলার। আর দারিদ্রসীমার নিচে যারা বসবাস করেন তাদের মাথাপিঁছু আয় এক ডলারেরও কম।

সমাবেশে আরো বক্তব্য দেন ওয়ার্কার্স পার্টি সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা, পলিটব্যুরো সদস্য মোস্তফা লুৎফুল্লাহ এমপি, রাজশাহী মহানগর ওয়ার্কার্স পার্টি সভাপতি লিয়াকত আলী লিকু, মাহমুদুল ইসলাম মানিক, কামরুল আহসান প্রমুখ।

sheikh mujib 2020