advertisement
আপনি দেখছেন

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সাম্প্রদায়িক অশুভ শক্তি আন্দোলনে পরাজিত, নির্বাচনে পরাজিত। এখন তারা কোনো পথ না পেয়ে শেখ হাসিনার সরকারের বিরুদ্ধে চক্রান্ত করে যাচ্ছে। তাই বাংলার বাতাসে আবারও ষড়যন্ত্র ও চক্রান্তের গন্ধ পাওয়া যাচ্ছে। 

obaidul qader rajshahi

আজ রোববার রাজশাহীর মাদ্রাসা মাঠে আয়োজিত মহানগর আওয়ামী লীগের সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ক্ষমতায় থাকার কারণে আওয়ামী লীগে সুবিধাভোগীদের অভাব নেই। দল ভারী করার জন্য এদের দলে টানবেন না। কমিটি করার সময় আপনারা দলের কথা চিন্তা করবেন। নিজের পকেটের কথা ভাববেন না। পকেট ভারী করে- এমন লোককে দলে প্রবেশ করিয়ে বঙ্গবন্ধুকে ছোট করবেন না, প্রধানমন্ত্রীকে ছোট করবেন না।

তিনি আরো বলেন, ষড়যন্ত্রকারীরা এসব পকেট কমিটির মাধ্যমে আওয়ামী লীগে প্রবেশ করছে। আপনারা যদি বঙ্গবন্ধুকে বিশ্বাস করেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বকে বিশ্বাস করেন তাহলে দুর্নীতিকে না বলুন, সন্ত্রাসকে না বলুন, চাঁদাবাজিকে না বলুন, মাদককে না বলুন। যদি আদর্শে বিশ্বাসী সন তাহলে জনগণের সেবার উদ্দেশ্যে রাজনীতি করুন। নিজের পকেট ভারী করার জন্য নয়।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, আওয়ামী লীগে যাতে কোনো সুবিধাভোগী ও সন্ত্রাসী প্রবেশ করতে না পারে সে বিষয়ে আপনারা খেয়াল রাখবেন। কারণ তারা দুঃসময় এলেই দল ছেড়ে পালাবে। আওয়ামী লীগের ত্যাগী ও পরীক্ষিত নেতা-কর্মীদের মূল্যায়ন করুন। তাদের নিয়ে আওয়ামী লীগকে নতুন করে ঢেলে সাজাতে হবে।

সম্মেলনে মঞ্চ ভর্তি নেতা দেখে কাদের বলেন, আমার কেন যেন মনে হচ্ছে আজকাল দলে কর্মী থেকে নেতাদের পরিমাণ বেড়ে গেছে। দলের এত নেতার দরকার নেই। দলের এখন প্রকৃত কর্মী দরকার। মঞ্চের দিকে তাকালেই বোঝা যায় কত নেতা এখন। এই বক্তব্য শোনার পর পরই মাঠভর্তি কর্মীরা করতালি আর চিৎকার দিয়ে তার বক্তব্যকে সমর্থন জানান।

sheikh mujib 2020