advertisement
আপনি দেখছেন

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে জাতির পিতার জন্ম শতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে আমন্ত্রণ করায় বঙ্গবন্ধু কবরে বসে কাঁদছেন বলে মন্তব্য করেছেন গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা জাফরুল্লাহ চৌধুরী। সোমবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে এক প্রতিবাদ সমাবেশে অংশ নিয়ে তিনি এ মন্তব্য করেন।

jafrullah chowdhuryগণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা জাফরুল্লাহ চৌধুরী

নরেন্দ্র মোদিকে ‘সাম্প্রদায়িক ব্যক্তিত্ব’ আখ্যা দিয়ে জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে মোদিকে আমন্ত্রণ জানানোর মাধ্যমে সরকার জনগণকে অপমান করেছে। সবচেয়ে বেশি অপমানিত হয়েছেন বঙ্গবন্ধু, তিনি এখন কবরে বসে কাঁদছেন।

প্রবীণ এই রাজনীতি বিশ্লেষক বলেন, এই মার্চ মাসে বঙ্গবন্ধু জাতির উদ্দেশে বলেছিলেন ‘আমি আপনাদের লোক’। আর এখন সরকারি দলের নেতারা বলছেন, ‘তারা ভারতের লোক’। বঙ্গবন্ধুর জন্য এর চেয়ে বড় অপমান আর কিছু হতে পারে না।

তিনি বলেন, বাংলাদেশে ঢুকতে হলে মোদিকে আগে ক্ষমা ভিক্ষা করতে হবে। সীমান্তে যত হত্যাকাণ্ড হয়েছে সবগুলোর ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। তিস্তাসহ সকল নদীর পানির নায্য অধিকার দিতে হবে। ভারতীয় হাইকমিশনের সামনের রাস্তাটিকে ফেলানী রোড নামকরণ করতে হবে। নয়তো মোদিকে এই দেশে ঢুকতে দেয়া হবে না।

উল্লেখ্য, সীমান্তে নির্বিচারে বাংলাদেশি নাগরিক হত্যার বিচারের দাবিতে গত ২৫ জানুয়ারি থেকে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে অবস্থান কর্মসূচি শুরু করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মার্কেটিং বিভাগের ছাত্র ও বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের কর্মী নাসির আব্দুল্লাহ। তারই অংশ হিসেবে আজ প্রতিবাদ সমাবেশের ডাক দেন নাসির।