advertisement
আপনি দেখছেন

পিরোজপুরে তাৎক্ষণিক বিচারক বদলি এবং নতুন বিচারক দিয়ে অল্প সময়ের মধ্যে সাবেক সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম এ আউয়াল এবং তার স্ত্রী লায়লা পারভীনের জামিনের ব্যবস্থা করার ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেছে মানবাধিকার সংগঠন আইন ও সালিশ কেন্দ্র (আসক)।

ain and salis kendra logo

তাছাড়া বিচারবিভাগের ওপর সরকারের প্রভাব সংক্রান্ত জনমনে যে ধারণা বা উদ্বেগ বিদ্যমান, ওই ঘটনার মাধ্যমে তা আরো দৃঢ় হয়ে উঠলো বলে মনে করে সংস্থাটি।

এ ছাড়া ওই ঘটনায় আইনমন্ত্রী আনিসুল হকের মন্তব্যকে হতাশাজনক বলেও উল্লেখ করেছে আসক।

আজ বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে আইন ও সালিশ কেন্দ্র এ সব কথা বলেছে।

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার আউয়াল সস্ত্রীক পিরোজপুর জেলা ও দায়রা জজ আদালতে হাজির হলে আদালত তাদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে জেল হাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন ওই আদালতের বিচারক আব্দুল মান্নান। এর আড়াই ঘণ্টা পর বিচারককে তাৎক্ষণিক বদলি করে যুগ্ম-জেলা জজ নাহিদ নাসরিনকে ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালতের দায়িত্ব দেওয়া হয়।

পরে বিকেলে আউয়ালের আইনজীবীরা জামিনের বিষয়টি পুনর্বিবেচনার জন্য আবেদন করলে নাহিদ নাসরিন আউয়াল দম্পতিকে জামিন দেন।

এ ঘটনায় দেশজুড়ে নানা সমালোচনা হয়। এমনই প্রেক্ষাপটে উপরোক্ত উদ্বেগ প্রকাশ করলো আসক।

এদিকে, তাৎক্ষণিক জেলা জজকে বদলির আদেশ কেন অবৈধ হবে না- তা জানতে আজ বৃহস্পতিবার রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে আইন মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগীয় সচিবকে রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

sheikh mujib 2020