advertisement
আপনি দেখছেন

হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে বিদেশ ফেরত যাত্রীদের টাকার বিনিময়ে করোনা থেকে মুক্তির সার্টিফিকেট দেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপি সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। বুধবার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলটির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ অভিযোগ করেন।

bnp rizbi ress conferance 2018 sep

রুহুল কবির রিজভী বলেন, বিমানবন্দরে একশ্রেণির অসাধু কর্মকর্তা টাকার বিনিময়ে করোনাভাইরাস মুক্ত সার্টিফিকেট দিচ্ছেন। ফলে বিদেশ থেকে যারা করোনাভাইরাস নিয়ে দেশে ফিরছেন তাদের রোগ শনাক্ত হয়নি। দেশে ফেরার পর উপসর্গ দেখা দিলে তারা নিজেরাই চিকিৎসকের কাছে যাচ্ছেন। ইতোমধ্যে একজনের সংস্পর্শে থেকে তার স্ত্রীও আক্রান্ত হয়েছেন।

অভিযোগ করে তিনি বলেন, ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের উদ্যোগ যথেষ্ট নয়। সারাদেশে আতঙ্ক সৃষ্টি হলেও তারা চরম উদাসীনতা ও খামখেয়ালিপনা প্রদর্শন করছে। সরকার আছে এখন মুজিববর্ষ নিয়ে। অথচ বিমানবন্দর, সমুদ্র বন্দর, স্থলবন্দর কোথাও করোনা পরীক্ষা করার স্ক্যানার নেই। যা ছিল সেগুলোও নষ্ট।

বিএনপির সিনিয়র এই নেতা বলেন, করোনার তথ্য ও সেবা পেতে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর ১৩টি হটলাইন নম্বর চালু করলেও সেগুলোতে ফোন করে কাউকে পাওয়া যায় না। ভাইরাসের উপসর্গ দেখা দিলে সরাসরি আইইডিসিআরে যেতে নিষেধ করেছে সরকার। তারা বলছে হটলাইন নম্বরে ফোন করলেই নাকি চিকিৎসকরা এসে নমুনা নিয়ে যাবেন। এগুলো ভাঁওতাবাজি ছাড়া আর কিছু নয়।

তিনি বলেন, বেশিরভাগ সরকারি হাসপাতালে আইসিইউ, ভেন্টিলেটর মেশিন এমনকি পর্যাপ্ত পরিমাণে বেডও নেই। চিকিৎসক-নার্সদের জন্য প্রয়োজনীয় মাস্ক ও ইউনিফর্ম নেই। ভাইরাস প্রতিরোধী মাস্ক ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার যথেষ্ট পরিমাণে না থাকায় যা আছে সেগুলো বেশি দামে রোগীদের কাছে বিক্রি করছে।