advertisement
আপনি দেখছেন

দিনাজপুরে জ্বর, সর্দি ও কাশিতে আক্রান্ত হওয়ায় চীন ফেরত এক শিক্ষার্থীকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে। বুধাবার তার নাক ও গলার লালার নমুনা সংগ্রহ করে তা পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠিয়েছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) একটি দল। তিনি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন কিনা তা পরীক্ষার রিপোর্ট আসার পরই জানা যাবে।

corona virus

ওই শিক্ষার্থীর পরিবারের সদস্যরা জানান, গত ২৭ ফেব্রুয়ারি চীনের জেজিয়াং প্রদেশ থেকে মালয়েশিয়া হয়ে দেশে আসেন ওই শিক্ষার্থী। তিনি জেজিয়াং প্রদেশের একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশুনা করছেন। হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে সুস্থ অবস্থায় দিনাজপুর আসেন তিনি। কিন্তু গত তিনদিন আগে জ্বর, সর্দি ও কাশিজনিত সমস্যায় আক্রান্ত হন। এর একদিন পর তার বাবাও একই সমস্যায় আক্রান্ত হন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে দিনাজপুর সিভিল সার্জন ডা. মো. আব্দুছ কুদ্দুছ বলেন, সম্প্রতি যেসব শিক্ষার্থী চীন থেকে দিনাজপুর এসেছেন, তাদের সবাইকে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল। এরই মধ্যে মঙ্গলবার এক শিক্ষার্থী অসুস্থ হওয়ার খবর পাওয়ার পর রাতেই একটি মেডিকেল টিম তার বাড়িতে যায়। ওই শিক্ষার্থী এবং তার বাবার শরীরে করোনাভাইরাসের লক্ষণ দেখা গেলেও বিষয়টি এখনো নিশ্চিত নয়।

তিনি আরো বলেন, বিষয়টি আইইডিসিআর-এ জানানো হলে বুধবার সেখান থেকে দুই সদস্যের একটি মেডিকেল টিম দিনাজপুর আসেন এবং ওই শিক্ষার্থীর নাক ও গলার লালার নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠান। পরীক্ষার রিপোর্ট আসার পর আইইডিসিআর থেকে এ বিষয়ে জানানো হবে।