advertisement
আপনি দেখছেন

চট্টগ্রামে ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশে ভ্রমণে আসা এক তরুণের চুল কেটে দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার সীতাকুণ্ডের গুলিয়াখালী সমুদ্র সৈকত এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। চুল কাটার সময় ঘটনাস্থলেই উপস্থিত ছিলেন নির্দেশদাতা সীতাকুণ্ডের সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ মাহবুবুল হক।

cutting boy hair in sitakundo

এ ঘটনার একটি ছবি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়লে তা নিয়ে ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়। ওই ছবিতে দেখা যায়, পুলিশসহ কয়েকজন মানুষের মাঝে মাথা নিচু করে দাঁড়িয়ে আছে এক তরুণ। একজন তার মাথার চুল কেটে দিচ্ছেন। আর পাশেই দাঁড়িয়ে থাকা একটি গাড়ির পেছনে পায়জামা-পাঞ্জাবি পরা অবস্থায় দাঁড়িয়ে আছেন ম্যাজিস্ট্রেট মাহবুবুল হক।

ইন্টারনেটে কেউ কেউ এই ঘটনার সমর্থন দিলেও বেশিরভাগ মানুষই এর বিরোধিতা করেছেন। শাহজাহান সালেহ নামের এক ব্যক্তি ফেসবুকে ছবিটি পোস্ট করে লিখেছেন, ‘সাধু সাবধান! গুলিয়াখালী সি বিচে ম্যাজিস্ট্রেটের অতর্কিত হানা। নিচের ছবিতে আপনারা দেখছেন, একটা কলেজপড়ুয়া ছেলের মাথার চুল কেটে দেওয়া হচ্ছে।’

সদরুল চৌধুরী নামের এক ব্যক্তি লেখেন, এভাবে কারো চুল কেটে দেওয়া কোনোভাবেই আইনসিদ্ধ বা গ্রহণযোগ্য নয়। এটা অবশ্যই ক্ষমতার অপব্যবহার।

এ বিষয়ে যোগাযোগ করা হলে ম্যাজিস্ট্রেট সৈয়দ মাহবুবুল হক বলেন, রাতে ওই সৈকতে তাঁবু টাঙিয়ে অসামাজিক কার্যকলাপ চলে- স্থানীয়দের এমন অভিযোগের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালান তিনি। এ সময় সেখান থেকে সাতটি তাঁবু জব্দ করা হয়। এক তরুণ উল্টাপাল্টা আচরণ করলে স্থানীয়রা তার চুল কেটে ছোট করে দেয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সীতাকুণ্ড উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিল্টন রায় বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে তার জানা নেই। তবে ম্যাজিস্ট্রেট চাইলেই কারো চুল এভাবে কাটতে পারেন না।

sheikh mujib 2020