advertisement
আপনি দেখছেন

দেশে তিনজনের পর নতুন করে আর কেউ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়নি। তিনজনের মধ্যে দুজন সুস্থ। ওই দুজনের মধ্যে একজন বাড়ি ফিরে গেছেন, আরেকজন নিজে থেকেই রয়ে গেছেন হাসপাতালে, কারণ তার বাড়িতে কয়েকজন কোয়ারেন্টিনে আছেন।

corona friday

শুক্রবার সকালে করোনাভাইরাস নিয়ে নিয়মিত ব্রিফিংয়ে এসব তথ্য দেন আইইডিসিআরের (রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান) পরিচালক অধ্যাপক ড. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। তিনি জানান, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নিয়মানুযায়ী, করোনায় আক্রান্ত রোগীকে ২৪ ঘন্টায় অন্তত দুবার নমুনা পরীক্ষা করতে হবে, যদি দুবারই নেগেটিভ আসে তাহলে ধরে নিতে হবে তিনি করোনামুক্ত।

এই নিয়মানুযায়ীই করোনামুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে দুজনকে। আক্রান্ত আরেক রোগীর দুবার পরীক্ষায় একবার নেগেটিভ আসলেও আরেকবার পজিটিভ আসায় তাকে করোনামুক্ত ঘোষণা করা হয়নি।

এর আগে গতকাল দেশব্যাপী করোনা মোকাবেলার প্রস্তুতি নিয়ে জানানো হয় আইইডিসিআরের পক্ষ থেকে। ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, সারা দেশের ১৪ হাসপাতালে মোট ১৩৫০টি আইসোলেশন শয্যা প্রস্তুত রাখা আছে। এর মধ্যে ঢাকা মহানগরে ৪০০, চট্টগ্রামে ১৫০, সিলেটে ২০০, বরিশালে ৪০০, এবং রংপুরে ২০০ শয্যা।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ বাংলাদেশে তিনজন করোনা আক্রান্ত রোগী শনাক্ত করা হয়।

sheikh mujib 2020