advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধ করতে সরকার ব্যর্থ দাবি করে বিএনপি সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, করোনা নিয়ে সরকারের পলিসি এখন জনগণের কাছে পরিষ্কার। তাদের পলিসি হলো ‘নো কিট, নো করোনা। নো টেস্ট, নো করোনা। নো পেশেন্ট, নো করোনা।

rizbi bnp talk corona protectionবিএনপি সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী

আজ সোমবার রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, একই পলিসি করেছিল ইরান ও ইতালি। দেশ দুটি এখন গোটা বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। অথচ বাংলাদেশ সরকারও সেই পলিসি অনুসরণ করে সব কিছু ম্যানেজ করছে। পাশাপাশি এই লুকানো পলিসি যাতে কেউ প্রকাশ করতে না পারে তার জন্য নানা রকমের অপচেষ্টা চালাচ্ছে। তাদের এ পলিসির নাম ‘গুজব’।

তিনি বলেন, দেশে এক সংকটময় পরিস্থিতি বিরাজ করছে। এই পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকার দুই মাস সময় পেয়েছিল। কিন্তু তারা সেদিকে কোনো মনোযোগ দেয়নি। বিদেশ ফেরতদের বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার নির্দেশনা অনুসরণে কোয়ারেন্টাইনে রাখতে তারা ব্যর্থ হয়েছে।

সরকারের সমন্বয়হীনতা ও প্রস্তুতির অভাব দেশকে বিপদে ফেলতে পারে উল্লেখ করে বিএনপি যুগ্ম-মহাসচিব বলেন, মহাবিপদ মোকাবেলায় সরকারের যথেষ্ট প্রস্তুতি ও সমন্বয় নেই। করোনা রোগী শনাক্তকরণের পর্যাপ্ত উপকরণ ও ব্যবস্থাপনা নেই। চিকিৎসক ও নার্সদের সুরক্ষার জন্য পর্যাপ্ত মাস্ক, স্যানিটাইজার ও ভেন্টিলেটর নেই।

পরীক্ষা ব্যবস্থা ছাড়া সরকার আক্রান্ত সংখ্যার যে তথ্য দিচ্ছে তা বিশ্বাসযোগ্যতা পাচ্ছে না দাবি করে তিনি বলেন, বলা হচ্ছে গত দুই দিন ধরে দেশে নতুন কোনো করোনা রোগী নেই। অথচ পত্র-পত্রিকা, টেলিভিশনসহ বিভিন্ন মিডিয়া বলছে ভিন্ন কথা। প্রতিদিন সর্দি, জ্বর, কাশিতে মানুষ মারা যাচ্ছে বলে তারা খবর প্রকাশ করছে।

করোনাভাইরাসের উপসর্গ নিয়ে ২৪ ঘণ্টায় পাঁচজনের মৃত্যুর সংবাদ ছাপা হয়েছে। এতেই প্রমাণ হয়, সরকার মিথ্যাচার করছে। কারণ ইলেকট্রনিক্স, প্রিন্ট মিডিয়ার খবরের সঙ্গে সরকারের ব্রিফিংয়ের আকাশ-পাতাল ব্যবধান, যোগ করেন বিএনপির সিনিয়র এই নেতা।