advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের সংক্রমণে যখন সারা পৃথিবী স্তব্ধ, তখনও এগিয়ে চলছে পদ্মা সেতুর কাজ। দেশে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হয়েছে, গণপরিবহন বন্ধ, সবাই আতঙ্ক নিয়ে ঘরে বসে আছেন; তবে পদ্মা সেতু নির্মাণের দায়িত্বে থাকা কর্মীদের বিরাম নেই। কাজ এগিয়ে চলছে আপন গতিতে। কিন্তু সম্প্রতি সেতু নির্মাণের বিভিন্ন সরঞ্জাম আটকে গেছে বন্দরে। এ নিয়ে প্রকল্প কর্তৃপক্ষের কাছে চিঠি পাঠিয়েছে নির্মাতা প্রতিষ্ঠান চায়না মেজর ব্রিজ ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি।

27th pillar set up padma

৩৫০ কোটি টাকার এই সরঞ্জাম যদি যথাসময়ে না পাওয়া যায় তবে কাজের গতি শ্লথ হয়ে আসবে। তাতে করে বেঁধে দেওয়ার সময়ের মধ্যে পদ্মা সেতুর কাজ সমাপ্ত করা যাবে না। চিঠিতে তাই এর একটা বিহিত করার অনুরোধ জানোনো হয়েছে কর্তৃপক্ষের কাছে।

চীনে যখন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ভয়ংকর মাত্রায়, তখন পদ্মা সেতুর নির্মাণের দায়িত্বে থাকা চীনের বেশ কিছু কর্মী সেদেশে আটকা পড়েন। তারপরও সেতুর কাজ বন্ধ করা হয়নি। গত ৩১ মার্চ ৪২টি পিয়ারের মধ্যে সর্বশেষটির কাজ সমাপ্ত হয়। সবমিলিয়ে এখন পর্যন্ত সেতুর ৮৭ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে।

সরঞ্জাম খালাস করার ব্যাপারে প্রকল্প পরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম বলেন, সরঞ্জাম আটকা থাকার বিষয়টি জ্ঞাত আছি। দ্রুতই এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেব আমরা।