advertisement
আপনি দেখছেন

দেশে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের (কোভিড-১৯) কারণে সৃষ্ট পরিস্থিতির মধ্যেও সংক্রমণের ঝুঁকি নিয়ে নিজেদের দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন সংবাদকর্মীরা। তাই তাদের পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ও বিশেষ প্রণোদনা দিতে সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী অ্যাডভোকেট মনিরুজ্জামান লিংকন।

bangladesh high court new 2019সুপ্রিম কোর্ট- ফাইল ছবি

মঙ্গলবার ই-মেইলের মাধ্যমে সরকারের তথ্য, অর্থ ও স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং বাংলাদেশ করোনা প্রতিরোধ সেল বরাবর এ নোটিশ পাঠানো হয়। করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে সরকারি-বেসরকারি অফিস-আদালত বন্ধ থাকায় রেজিস্ট্রি ডাকযোগের পরিবর্তে ই-মেইলের মাধ্যমে এ নোটিশ পাঠানো হয়।

নোটিশে আগামী সাতদিনের মধ্যে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ করা হয়। তা না হলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও জানানো হয়।

নোটিশে বলা হয়, বিশ্বব্যাপী মহামারি আকার ধারণ করেছে করোনাভাইরাস। বাংলাদেশেও এর ব্যাপকতা রয়েছে। কিন্তু এখন পর্যন্ত বিজ্ঞানীরা এর কোনো সুনির্দিষ্ট প্রতিষেধক আবিষ্কার করতে পারেননি। তাই এই সংকট থেকে বাঁচার একমাত্র উপায় সামাজিক সচেতনতা। যা মানুষের কাছে প্রচার করতে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা রাখছে গণমাধ্যম এবং কর্মরত সংবাদকর্মীরা।

এতে আরো বলা হয়, এই মহামারির বিরুদ্ধে যুদ্ধের অগ্রভাগে চিকিৎসকদের পাশাপাশি ভূমিকা রাখছেন সংবাদকর্মীরা। তারা জীবনের ঝুঁকি নিয়ে মাঠে থেকে সংবাদ সংগ্রহ করছে এবং প্রচার করছে। তাদের কারণেই দেশের সকলে এ ভাইরাস সম্পর্কে তথ্য পাচ্ছে। ইতোমধ্যে কয়েকজন সংবাদকর্মী প্রাণঘাতী এ ভাইরাসে আক্রান্তও হয়েছেন। তাই তাদের নিরাপত্তা প্রদান করা রাষ্ট্রের দায়িত্ব হয়ে দাঁড়িয়েছে।

এজন্য সরকারের উচিত সংবাদকর্মীদের নিরাপত্তার স্বার্থে পিপিইসহ অন্যান্য সুরক্ষা সামগ্রী প্রদান করা এবং তাদের জন্য বিশেষ প্রণোদনার ব্যবস্থা করা।