advertisement
আপনি দেখছেন

নভেল করোনাভাইরাসে (কোভিড-১৯) আক্রান্ত হয়েছেন জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতালের চিকিৎসক-নার্সসহ ১৮ জন স্বাস্থ্যকর্মী। মঙ্গলবার গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগের চিকিৎসক কাজল কুমার কর্মকার।

national institute of cardiovascular diseasesজাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউট ও হাসপাতাল- ফাইল ছবি

তিনি জানান, হাসপাতালের ছয়জন চিকিৎসক, আটজন নার্স, তিনজন কর্মী ও একজন ওয়ার্ড বয় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এদের মধ্যে একজন নার্স ও এক কর্মীকে ওই হাসপাতালেই চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। বাকিরা সবাই নিজ নিজ বাসায় আইসোলেশনে আছেন। তবে আক্রান্ত আরো এক চিকিৎসককে বাসা থেকে হাসপাতালে আনতে হতে পারে।

তিনি আরো জানান, ইতোমধ্যে শিশু ওয়ার্ডসহ হাসপাতালের তিনটি ওয়ার্ড বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি আক্রান্তদের সংস্পর্শে আসা আরো ১৫ চিকিৎসক ও ৩৭ নার্সকে হোম কোয়ারেন্টাইনে পাঠানো হয়েছে।

এভাবে চলতে থাকলে আগামী কিছু দিনের মধ্যে হাসপাতালটি পুরোপুরি বন্ধ হয়ে যেতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেন এই চিকিৎসক।

হাসপাতালের একটি সূত্র জানায়, সম্প্রতি হার্টের সমস্যা নিয়ে শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি হয় জিহাদ নামের এক শিশু। তার বাড়ি বাগেরহাট জেলায়। সন্দেহের বশে চিকিৎসকরা তার করোনাভাইরাস পরীক্ষা করেন। পরীক্ষায় তার শরীরে করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়। এ খবর জানার পরপরই শিশুটির বাবার তাকে নিয়ে হাসপাতাল থেকে পালিয়ে যায়। ওই শিশুর মাধ্যমেই চিকিৎসক-নার্সসহ হাসপাতালের ১৮ কর্মী আক্রান্ত হয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

sheikh mujib 2020