advertisement
আপনি দেখছেন

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, করোনার প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকেই যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করায় মৃত্যুর হার অন্যান্য দেশের তুলনায় কম। যদিও কোনো মৃত্যুই কাম্য নয়। আজ সোমবার জাতীয় সংসদে প্রস্তাবিত ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী এ কথা বলেন।

pm hasina parliament budget 1সংসদে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

এ সময় তিনি বৈশ্বিক করোনা পরিস্থিতির চিত্র তুলেন। গতকাল রোববারের হিসাব তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিশ্বে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা এক কোটি ২ হাজার ২০০ জন। এর মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন ৫ লাখ ১ হাজার ৬৪৪ জন। তার মানে বৈশ্বিক মৃত্যুর হার ৫ দশমিক শূন্য ১ শতাংশ। আর বাংলাদেশে আক্রান্ত হয়েছেন ১ লাখ ৩৭ হাজার ৭৮৭ জন। মারা গেছেন ১ হাজার ৭৩৮ জন মৃত্যুবরণ করেছেন। ৫৫ হাজার ৭২৭ জন সুস্থ হয়ে ফিরে এসেছেন।

তিনি বলেন, আক্রান্তের তুলনায় বাংলাদেশে মৃত্যুর হার ১ দশমিক ২৬ শতাংশ। ভারতে ৩ দশমিক শূন্য ৮ শতাংশ, পাকিস্তানে ২ দশমিক শূন্য ৩, যুক্তরাজ্যে ১৪ দশমিক শূন্য ৩ এবং যুক্তরাষ্ট্রে ৫ শতাংশ।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘দ্রুত কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করায় আমরা করোনাভাইরাসজনিত মৃত্যুর হার কম রাখতে সক্ষম হয়েছি। যদিও আমরা চাই না কেউ মৃত্যুবরণ করুক।’

bangladesh parliament 1জাতীয় সংসদ ভবন

এ সময় করোনা মোকাবেলায় আরো চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মীর পদ সৃষ্টি ও নিয়োগের কথা জানিয়ে সরকার প্রধান বলেন, করোনাক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা সেবা নিশ্চিতের জন্য অল্প সময়ের মধ্যে দুই হাজার চিকিৎসক ও ছয় হাজার নার্স নিয়োগ দেয়া হয়েছে। সেই ধারাবাহিকতায় আরো দুই হাজার চিকিৎসক এবং চার হাজার নার্স নিয়োগের জন্য পদ সৃষ্টি করা হয়েছে।

সেই নির্দেশ ইতোমধ্যে স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে দেয়া হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, শিগগিরই এসব চিকিৎসক-নার্স নিয়োগ দেয়া হবে। পাশাপাশি স্বাস্থ্য খাতে আরো তিন হাজার টেকনিশিয়ানের পদ সৃষ্টি করা হয়েছে। তাদেরও নিয়োগ প্রক্রিয়া ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে।

সংসদ নেতা বলেন, করোনা চিকিৎসায় যন্ত্রপাতি, টেস্ট কিট, সরঞ্জামাদি কেনাসহ চিকিৎসা সুবিধা আরো বাড়ানোর লক্ষ্যে দ্রুততম সময়ে দুই হাজার ৫০০ কোটি টাকা ব্যয়ে দুটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়েছে। আরো একটি চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। এগুলো বাস্তবায়ন হলে করোনা মোকাবেলায় আমাদের সামর্থ্য আরো বাড়বে বলে বিশ্বাস।

sheikh mujib 2020