advertisement
আপনি দেখছেন

নমুনা পরীক্ষার ক্ষেত্রে গ্রামে-গঞ্জের প্রান্তিক জনগণ এবং নিম্ন আয়ের মানুষদের জন্য একটা বিকল্প ব্যবস্থা রাখা দরকার বলে মনে করেন প্রখ্যাত মেডিসিন বিশেষজ্ঞ এবং প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত চিকিৎসক অধ্যাপক ডা. এবিএম আবদুল্লাহ। আজ মঙ্গলবার দেশীয় একটি গণমাধ্যমকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি এ কথা বলেন।

dr abm abdullah1অধ্যাপক ডা. এবিএম আবদুল্লাহ

অধ্যাপক ডা. এবিএম আবদুল্লাহ বলেন, নমুনা পরীক্ষার ক্ষেত্রে দেখা যাচ্ছে, অনেকের দরকার নেই, তারপরও অযথা এসে লাইনে দাঁড়াচ্ছে। এতে করে ভিড় বাড়ে এবং যারা প্রকৃত রোগী তাদের ভোগান্তি বেড়ে যায়। এখন ফি নির্ধারণ করায় ভিড় কিছুটা কমতে পারে।

এক্ষেত্রে নিম্ন আয়ের মানুষদের জন্য একটা বিকল্প ব্যবস্থা রাখা দরকার উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকার চাইলে দুইটা বুথের মাধ্যমে নমুনা সংগ্রহের ব্যবস্থা করতে পারে। একটা বুথে বিনামূল্যে এবং অপরটিতে টাকা দিয়ে। ফলে যারা চায়, টাকা দিয়ে করতে পারবে। আর যাদের আর্থিক অবস্থা নেই, তারা বিনামূল্যে করবে। হয়তো বিনামূল্যে পরীক্ষার বুথে ভিড় বেশি থাকবে। তারপরও নিম্ন আয়ের মানুষদের জন্য এমন ব্যবস্থা রাখা দরকার।

সরকারের পক্ষ থেকে বিনামূল্যে পরীক্ষা করার বিকল্প ব্যবস্থা না রাখলে এবং ফি’র কারণে নিম্ন আয়ের মানুষ পরীক্ষা করাতে না গেলে সামনে সংক্রমণের ঝুঁকি আরো বাড়তে পারে জানিয়ে তিনি বলেন, এখন যদি দেখা যায় পরিস্থিতি খারাপের দিকে যাচ্ছে, তাহলে সরকার অবশ্যই এ সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করবে। কিন্তু যদি বিকল্প ব্যবস্থা না রাখা হয়, তাহলে ঝুঁকি বাড়বেই।

প্রধানমন্ত্রীর এই ব্যক্তিগত চিকিৎসক বলেন, এখন আমাদের পরীক্ষা কম হচ্ছে, ল্যাব কম। তাছাড়া দক্ষ লোকবল না থাকলে তো ঠিকমতো পরীক্ষার কাজ করা যাবে না। যারা নমুনা সংগ্রহ ও পরীক্ষার কাজ করবে, তারা অভিজ্ঞ না হলে পরীক্ষার ফল ভুল আসতে পারে। এ জন্য আগে ট্রেনিংয়ের মাধ্যমে দক্ষ লোক নিয়োগ দিতে হবে। পাশাপাশি এ কাজে টেকনোলজিক্যাল সাপোর্টও দরকার।

বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে বেশি ফি নেয়ার ব্যাপারে তিনি বলেন, সেখানে সাড়ে তিন হাজার টাকা ফি নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছে। কিন্তু কোনো কোনো হাসপাতালে চার থেকে ছয় হাজার টাকা করে নেয়া হচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে। এক্ষেত্রে সরকারের উচিত তদারক কমিটি করে কঠোরভাবে মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা করা।

sheikh mujib 2020