advertisement
আপনি দেখছেন

প্রতি ১ লাখ জনগণের মধ্যে নতুন করে করোনাভাইরাসে সংক্রমিত ব্যক্তির সংখ্যার ওপর ভিত্তি করে একটি র‍্যাংকিং তৈরি করেছে মার্কিন প্রতিষ্ঠান গ্লোবাল হেলথ ইনস্টিটিউট। প্রাপ্ত তথ্যের ওপর ভিত্তি করে তারা বিশ্বের বিভিন্ন দেশকে রেড, অরেঞ্জ, ইয়োলো, গ্রিন জোনে ভাগ করেছে। বাংলাদেশ এই র‍্যাংকিংয়ে ইয়োলো জোনে স্থান পেয়েছে।

bangladeshi walking in streetমাস্ক পরে রাস্তায় হাঁটছে মানুষ

গ্লোবাল হেলথ ইনস্টিটিউটের ওয়েবসাইট অনুযায়ী, গ্রিন জোনের দেশগুলোতে করোনায় সংক্রমণের হার সবচেয়ে কম। এই জোনে প্রতি ১ লাখ মানুষের মধ্যে ১ বা তার কম সংক্রমণের হার থাকে।

এর পরই আছে ইয়োলো জোন। গ্লোবাল হেলথ ইনস্টিটিউটের র‍্যাংকিং অনুযায়ী, এই জোনের দেশে প্রতি লাখে ১ থেকে ৯ জন সংক্রমিত হচ্ছে। 

bangladeshi waiting for terstingশনাক্তকরণ টেস্টের জন্যে অপেক্ষা

রেড ও অরেঞ্জ জোনে রাখা হয়েছে সবচেয়ে ঝুঁকিতে থাকা দেশগুলোকে। ১০ থেকে ২৪ এর মধ্যে থাকলে অরেঞ্জ জোন। আর প্রতি লাখে নতুন সংক্রমিত রোগীর সংখ্যা ২৫ এর বেশি হলে তা রেড জোন হবে। 

গ্লোবাল হেলথ ইনস্টিটিউটের র‌্যাংকিং অনুযায়ী, বাংলাদেশ রয়েছে ইয়োলো জোনে। বাংলোদেশের সংক্রমণের হার দেখানো হয়েছে প্রতি লাখে ২ দশমিক ৩। এই জোনে আরো আছে যুক্তরাজ্য, সংযুক্ত আরব আমিরাত, ভারত, রাশিয়া, পাকিস্তান, ইরান, তুরস্কসহ আরো বেশ কিছু দেশ।

এই জোনে থাকা দেশগুলোর জন্য মার্কিন এই সংস্থাটির পরামর্শ হলো- কঠোর নিয়ম অনুসরণ করে করোনাভাইরাসের টেস্ট করতে হবে এবং তাদের সংস্পর্শে আসা ব্যক্তিদের দ্রুত সময়ের মধ্যে চিহ্নিত করতে হবে। তা না হলে সংক্রমণ আটকানো যাবে না।

sheikh mujib 2020