advertisement
আপনি দেখছেন

করোনা রোগীদের সঙ্গে প্রতারণা ও বিভিন্ন অনিয়মের দায়ে রাজধানীর বেসরকারি রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযানের চারদিন পেরিয়ে গেছে। কিন্তু এখনো পলাতক আছেন প্রতিষ্ঠানটির মালিক মো. শাহেদ করিম। তবে নিজেদের গোয়েন্দা নেটওয়ার্কের মধ্যে থাকায় তাকে যেকোনো সময় গ্রেপ্তার করা হবে বলে জানিয়েছে র‌্যাব।

regent shahed karim new1মো. শাহেদ করিম

এ বিষয়ে আজ বৃহস্পতিবার র‌্যাবের মুখপাত্র লেফটেন্যান্ট কর্নেল আশিক বিল্লাহ বলেন, বর্তমানে শাহেদ তাদের গোয়েন্দা নেটওয়ার্কের মধ্যে আছে। যেকোনো সময় তাকে গ্রেপ্তার করা হবে। পাশাপাশি তার অপকর্মে মদদদাতাদেরও বিন্দু পরিমাণ ছাড় দেয়া হবে না।

জানা গেছে, রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযানের সময় ঢাকাতেই ছিলেন মো. শাহেদ করিম। পরে গ্রেপ্তারের ভয়ে নিজেকে আড়াল করতে আত্মগোপনে চলে যান। ইতোমধ্যে চাঞ্চল্যকর এ মামলার তদন্তভার নিতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছে র‌্যাব।

regent hospital

গত ৭ জুলাই রাতে উত্তরা পশ্চিম থানায় দণ্ডবিধি ৪০৬/৪১৭/৪৬৫/৪৬৮/৪৭১/২৬৯ ধারায় হাসপাতালটির চেয়ারম্যান মো. শাহেদসহ ১৭ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করে র‌্যাব।

সেই মামলায় ইতোমধ্যে হাসপাতালটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মাসুদ পারভেজসহ আটজনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, শাহেদের ঘনিষ্ঠ সহযোগী ও রিজেন্ট গ্রুপের মুখপাত্র তারেক শিবলীকেও ঢাকার নাখালপাড়া থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

এদিকে শাহেদের বিচার চেয়ে গণমাধ্যমে বিবৃতি দিয়েছেন তার স্ত্রী সাদিয়া আরাবি রিম্মি। স্বামীর এমন অপকর্ম ও প্রতারণার কারণে তিনি নিজে এখন খুবই লজ্জিত এবং দুঃখিত বলেও জানিয়েছেন।

sheikh mujib 2020