advertisement
আপনি দেখছেন

নরমাল কোনো ওষুধ নয়, বিদেশের নামি-দামি ওষুধ তৈরি হচ্ছে রাজধানী ঢাকার উত্তরায় একটি ফ্ল্যাট ভাড়া নিয়ে। সম্প্রতি ডিবি পুলিশ ও র‌্যাবের যৌথ অভিযানে বেরিয়ে আসে এমন প্রতারণার খবর। জানা যায়, চার বছর ধরে এই অভিজাত এলাকায় এমন কারবার করে যাচ্ছে একটি গোষ্ঠি। চকচকে মোড়কের গায়ে লেখা থাকে মেইড ইন ইউএসএ কিংবা মেইড ইন থ্যাইল্যান্ড। দামও যেনোতেনো নয়, ৬০০ টাকা থেকে ১ হাজার ৩০০ টাকা পর্যন্ত।

fake drug

এভাবে ভুয়া ওষুধ বানানো পর্যন্তই থেকে থাকেনি প্রতারক চক্র। এসব ওষুধ প্রেসক্রাইব করার জন্য কিছু চিকিৎসকের সঙ্গে চুক্তিও করে তারা। চিকিৎসকদের পরামর্শের কারণে বাজারে ওষুধগুলোর চাহিদারও কোনো ঘাটতি হয় না। উত্তরার বেশ কয়েকটি নামকরা ফার্মেসিতেও খোঁজ মিলেছে এসব ভুয়া ওষুধের। ডিবি পুলিশ সেগুলোও জব্দ করে।

মূলত দুই প্রকারের ওষুধ তারা বেশি বানায়। একটা যৌনশক্তি বর্ধক অন্যটি ত্বকের জন্য। অভিযান পরিচালনাকারী আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা বলছেন, ক্রেতারা সাধারণত এসব ওষুধ কিনতে গিয়ে খুব বেশি খোঁজ-খবর করেন না। তাই নকল মোড়কে তারা এসব ওষুধ বাজারে ছাড়ে সবচেয়ে বেশি।

duplicate drugs 3

ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. ইকবাল হোসেন জানান, এসব ওষুধ কিনে ক্রেতাদের যে শুধু পয়সা নষ্ট হয় তাই নয়, এগুলো স্লো পয়জনের মতো, ধীরে ধীরে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয় মানুষকে। ঢাকায় এর আগেও কয়েকবার এসব কারখানার খোঁজ পেয়েছি আমরা। তাই ক্রেতাদেরকে বলবো, প্লিজ আপনারা আরো বেশি সতর্ক হোন।

sheikh mujib 2020