advertisement
আপনি দেখছেন

করোনাভাইরাসের ভুয়া রিপোর্ট তৈরি করে জেকেজি হেলথ কেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা চৌধুরী তার স্বামী আরিফ চৌধুরীর সহায়তায় অন্তত ৮ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। আর সাবরিনার এই অভিযোগ ও জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদের অনুসন্ধানে নামার ঘোষণা দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

dr sabrina jkgজেকেজি হেলথ কেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা চৌধুরী

দুদক সোমবার এক কমিশন সভা থেকে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানা গেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন দুদকের পরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য।

তিনি বলেন, জাতীয় হৃদরোগ ইনস্টিটিউটে কর্মরত তথা সরকারি চাকরিতে বহাল থেকে ডা. সাবরিনার বিরুদ্ধে তার স্বামী আরিফ চৌধুরীর সহায়তায় প্রতারণা ও জালিয়াতির মাধ্যমে করোনারোগীদের নমুনা সংগ্রহের অভিযোগ রয়েছে। ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে নমুনা সংগ্রহ করে ১৫ হাজার ৪৬০টি ভুয়া রিপোর্ট প্রস্তুত ও সরবরাহ করা হয়েছে।

dudok officeদুদক কার্যালয়

প্রণব কুমার জানান, এইসব ভুয়া রিপোর্ট থেকে ৮ কোটি টাকা হাতিয়ে নেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ছাড়াও ডা. সাবরিনার বিরুদ্ধে জ্ঞাত আয় বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ রয়েছে। আর এসব অভিযোগ অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নিয়েছে কমিশন।

জানা যায়, দুদকের সংশ্লিষ্ট অণুবিভাগগুলো বিভিন্ন ব্যক্তি, গণমাধ্যম, ভার্চুয়াল মাধ্যমসহ বিভিন্ন উৎস হতে ডা. সাবরিনার বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগগুলো সংগ্রহ করে। কমিশনের দৈনিক ও সাম্প্রতিক অভিযোগ সেলে এসব তথ্য-উপাত্ত সংবলিত অভিযোগ উপস্থাপন করার পরই বিষয়টি অনুসন্ধানের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বিশেষ তদন্ত অণুবিভাগের মাধ্যমে অভিযোগের অনুসন্ধান করা হবে জানিয়েছে দুদক।

sheikh mujib 2020