advertisement
আপনি দেখছেন

ঈদের দিন ডিঙ্গি নৌকা নিয়ে বিলে ঘুরতে বের হয়েছিলো চার কিশোরী। কিছুদূর যাওয়ার পর নৌকার ওপর দাঁড়িয়ে মোবাইল ফোনে ছবি তুলছিলো তারা। বিলেও ছিলো প্রবল স্রোত। হঠাৎই ভারসাম্য হারিয়ে তাদের নৌকাটি ডুবে যায়। এতে প্রাণ হারায় দুই কিশোরী।

boat sunkঈদে ঘুরতে বের হয়ে আর ফের হলো না তাদের

আজ শনিবার দুপুরে ঢাকার ধামরাই উপজেলার ভাড়ারিয়া ইউনিয়নের মান্দারচাপ গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ঈদের দিন দুই কিশোরীর মৃত্যুর ঘটনায় ওই এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

মারা যাওয়া কিশোরীরা হলেন- মান্দারচাপ গ্রামের আবদুল হালিমের মেয়ে মিম আক্তার (১৩) ও একই গ্রামের শরিফুল ইসলামের মেয়ে শিখা আক্তার (১৪)। তারা দুজন বান্ধবী এবং স্থানীয় জামাল উদ্দিন স্কুল অ্যান্ড কলেজের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী। ঘটনার সময় রিয়া ও তামান্না নামের তাদের আরো দুই বান্ধবী এবং পাশের গ্রামে জুলহাস নামের এক ব্যক্তি নৌকায় ছিলো।

নিহত শিখার চাচা সাইফুল ইসলাম বলেন, গ্রামের চারপাশে বিলগুলো পানিতে থৈ থৈ করছে। দুপুরের দিকে জুলহাস কোরবানির মাংস নিতে তাদের গ্রামে আসেন। তখন তার ভাতিজি শিখা বান্ধবীদের নিয়ে নৌকায় ঘুরতে বের হয়। কিছুদূর যাওয়ার পর তারা নৌকার ওপর দাঁড়িয়ে মোবাইল ফোনে ছবি তুলছিলো। বিল পানিতে পরিপূর্ণ থাকায় প্রবল স্রোতও ছিলো। এতে নৌকাটি ভারসাম্য হারিয়ে একদিকে কাত হয়ে যায় এবং ডুবে যায়।

dhamrai upazila health complexধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স- ফাইল ছবি

তিনি আরো জানান, ডিঙ্গি নৌকাটি ডুবে যাওয়ার পর রিয়া, তামান্না ও জুলহাস সাঁতরে পাশের রাস্তায় উঠে। কিন্তু মিম ও শিখা সাঁতার না জানায় ডুবে যায়। এ সময় তাদের চিৎকারে আশপাশের লোকজন ছুটে আসে এবং তাদের উদ্ধার করে ধামরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে। কিন্তু শেষ রক্ষা হয়নি। হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসকরা তাদের মৃত ঘোষণা করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ধামরাই থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। স্বজনদে আবেদনের প্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই নিহতদের মরদেহ পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

sheikh mujib 2020