advertisement
আপনি দেখছেন

তৈরি পোশাক খাতের রপ্তানি বাজারে এক ধাপ নিচে নেমে গেছে বাংলাদেশ। অন্যদিকে বাংলাদেশকে ছাড়িয়ে ভিয়েতনাম এখন দ্বিতীয় শীর্ষ তৈরি পোশাক রপ্তানিকারক দেশ। ২০১৯ সালের জুলাই থেকে ২০২০ সালের জুন পর্যন্ত ১২ মাসে দুই দেশের রপ্তানি আয়ের পরিসংখ্যানে এ তথ্য উঠে এসেছে।

bgmea garments labor returningতৈরি পোশাক কারখানায় কাজ করছেন কর্মীরা

পরিসংখ্যান অনুযায়ী, এই সময়ের মধ্যে তৈরি পোশাক খাত থেকে ভিয়েতনামের রপ্তানি আয় এসেছে ৩০ বিলিয়ন ৯১ কোটি ডলার। বিপরীতে বাংলাদেশের এসেছে ২৭ বিলিয়ন ৯৫ কোটি ডলার। অর্থাৎ বাংলাদেশের চেয়ে ভিয়েতনামের আয় প্রায় ৩ বিলিয়ন বা ২৯৬ কোটি ডলার বেশি।

তবে মহামারি করোনাভাইরাসের কারণে দুই দেশেরই তৈরি পোশাক খাতে রপ্তানি আয় আগের বছরের তুলনায় কমেছে। বাংলাদেশের তৈরি পোশাক রপ্তানি আয় কমেছে ১৮ দশমিক ১২ শতাংশ। আর ভিয়েতনামের রপ্তানি কমেছে ৩ দশমিক ০৯ শতাংশ।

সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ভিয়েতনামের পোশাক খাতে বেশিরভাগ বিনিয়োগই চীনাদের। সে জন্যই তারা এগিয়ে গেছে।

bangladesh garments at ashuliaতৈরি পোশাক কারখানায় কাজ করছেন কর্মীরা

অন্যদিকে, বিভিন্ন কারণে বাংলাদেশ তার আগের অবস্থান ধরে রাখতে পারেনি। এক্ষেত্রে নিজেদের অবস্থান আবার ফিরিয়ে আনতে ঋণ সুবিধা যেমন দরকার তেমনি দরকার এফওবিতে দেয়া নগদ সহায়তা প্রাপ্তির সহজলভ্যতা। সেই সঙ্গে জোটবদ্ধ বাণিজ্য সুবিধা নেয়ার পাশাপাশি বিদেশি বিনিয়োগ আকর্ষণেও কাজ করা প্রয়োজন।

এ ছাড়া বর্তমানের পরিবর্তনশীল বাজারে টিকে থাকার প্রতিযোগিতায় ক্রেতাদের চাহিদাকে মাথায় রেখে রকমারি পণ্য তৈরিতে উদ্যোক্তাদের কৌশলী হতে হবে বলে মনে করেন তারা।

sheikh mujib 2020