advertisement
আপনি দেখছেন

মহামারি করোনাভাইরাস পরিস্থিতি এখনো পুরোপুরি অনুকূলে না আসায় আসন্ন অক্টোবরেও শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলার সম্ভাবনা নেই। আর তা বিবেচনায় নিয়েই আগামী ১ নভেম্বর থেকে ৩৯ দিনের জন্য সংক্ষিপ্ত পাঠ-পরিকল্পনা প্রকাশ করেছে জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমি (ন্যাপ)।

primary mass education ministry logo

সরকারের সর্বশেষ সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, আগামী ৩ অক্টোবর পর্যন্ত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে। কিন্তু সেপ্টেম্বরের অর্ধেকের বেশি পার হয়ে গেলেও অক্টোবরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে এখনো কোনো নির্দেশনা নেই। জাতীয় টেকনিক্যাল পরামর্শক কমিটিও কোনো সিদ্ধান্ত নেয়নি।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্টরা বলছেন, এই মুহূর্তে দেশের যা পরিস্থিতি তাতে অক্টোবরেও সম্ভবত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা যাবে না। আর সেটা মাথায় রেখেই ১ নভেম্বর থেকে ২৯ ডিসেম্বর পর্যন্ত ৩৯ দিনের জন্য সংক্ষিপ্ত পাঠ-পরিকল্পনা প্রকাশ করা হয়েছে।

আর যদি অক্টোবরে প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলেও তাহলে তা শুধু প্রস্তুতির জন্য। এক্ষেত্রে ১৫ দিনের সময় দেয়া হবে এবং ১ নভেম্বর থেকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলবে। যদি তাও সম্ভব না হয়, তাহলে শ্রেণি মূল্যায়নেরও সুযোগ থাকবে না। তখন সবাইকে পরবর্তী শ্রেণিতে অটো পাশ করিয়ে দেয়া হবে, বলছেন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।

akram al hossani primary educationপ্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. আকরাম আল হোসেন

এ বিষয়ে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব মো. আকরাম আল হোসেন বলেন, দুটি লেসন প্ল্যান তৈরি করা হয়েছে এবং পরিস্থিতি বিবেচনা করে নভেম্বর থেকে তা বাস্তবায়ন করা হবে। তবে অক্টোবরে খোলার বিষয়ে কোনো নির্দেশনা নেই, পরিস্থিতি উন্নতি হলেই ব্যবস্থা নেয়া হবে। আর যদি নভেম্বরে স্কুল খোলা না যায়, তাহলে অটো পাস করানো ছাড়া কোনো উপায় নেই।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক মন্ত্রণালয়ের এক কর্মকর্তা বলেন, করোনায় আক্রান্তের হার যেভাবে কমছে তাতে নভেম্বরে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার একটা সম্ভাবনা আছে। সেক্ষেত্রে অবশ্যই অক্টোবরের মাঝামাঝিতে আক্রান্তের হার সিঙ্গেল ডিজিটে আসতে হবে। তাহলে ১৫ দিনের প্রস্তুতিতে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা যাবে।

sheikh mujib 2020