advertisement
আপনি দেখছেন

বিশ্ববাজারে স্বর্ণের দরপতন হয়েছে। ফলে দেশীয় বাজারেও সব ধরনের স্বর্ণের দাম কমে গেছে। প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম কমেছে প্রায় আড়াই হাজার টাকা। মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছে বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতি (বাজুস)।

gold new

সংস্থাটি জানায়, নতুন করে ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ৭৩ হাজার ৮৩৩ টাকা। যা আগে ছিল ৭৬ হাজার ৩৪১ টাকা। বুধবার (২৫ নভেম্বর) থেকে স্বর্ণের এ নতুন দর কার্যকর হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

বাজুস সভাপতি এনামুল হক খান ও সাধারণ সম্পাদক দিলীপ কুমার আগরওয়ালার স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বৈশ্বিক স্থবিরতা, ডলার ও তেলের দরপতন, আন্তর্জাতিক স্বর্ণবাজারে নজিরবিহীন উত্থান-পতনের পরও দেশীয় বাজারের মন্দাভাব ও ভোক্তা সাধারণের কথা চিন্তা করে প্রতিকূল পরিস্থিতিতেও স্বর্ণের দাম কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাজুস। তবে রুপার দাম আগেরটাই থাকবে।

gold bars 19

সিদ্ধান্ত মোতাবেক, এখন থেকে ২২ ক্যারেটের প্রতি ভরি স্বর্ণের দাম ৭৩ হাজার ৮৩৩ টাকা, ২১ ক্যারেটের স্বর্ণ ৭০ হাজার ৬৮৪ টাকা, ১৮ ক্যারেটের স্বর্ণ ৬১ হাজার ৯৩৬ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। এ ছাড়া সনাতন পদ্ধতিতে প্রতি ভরি স্বর্ণ ৫১ হাজার ৬১৩ টাকা এবং ২২ ও ২১ ক্যারেটের প্রতি ভরি রূপার দাম আগের নির্ধারিত ১৫১৬ ও ১৪৩৫ টাকাই থাকবে।

সাধারণত বাংলাদেশের বাজারে কোন দামে স্বর্ণ বিক্রি হবে, তা নির্ধারণ করে বাজুস। বিশ্ববাজারে দাম বৃদ্ধি-হ্রাসের ওপর নির্ভর করে এই দাম নির্ধারণ করে থাকে তারা। এক্ষেত্রে বিশ্ববাজারের সাপ্তাহিক দামের গড় ভিত্তিতে কী পরিমাণ দাম বাড়বে না কমবে, সে হিসেবে সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

sheikh mujib 2020