advertisement
আপনি দেখছেন

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ একটি সুশৃঙ্খল রাজনৈতিক দল এবং সাংগঠনিকভাবে কোনো অনিয়ম, দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেয়া হয় না বলে দাবি করেছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। আজ বৃহস্পতিবার নিজ সরকারি বাসভবন থেকে এক ভার্চুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা বলেন।

kader al panjabiআওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, দলে অভ্যন্তরীণ গণতন্ত্র চর্চা হয়। পাশাপাশি দলীয় প্রধান শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দুষ্টের দমন ও শিষ্টের লালন নীতিও অনুসরণ করা হয়। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ একটি সুশৃঙ্খল রাজনৈতিক দল এবং সাংগঠনিকভাবে কোনো অনিয়ম, দুর্নীতিকে প্রশ্রয় দেয়া হয় না।

যে কোনো অভিযোগের প্রমাণ পাওয়া মাত্রই সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে জানিয়ে তিনি বলেন, অনিয়ম-দুর্নীতির বিরুদ্ধে শেখ হাসিনা স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে শুদ্ধি অভিযান শুরু করেছিলেন। সেটি এখনো চলমান আছে এবং ভবিষ্যতেও অব্যাহত থাকবে। রাজনৈতিক পরিচয়ে অপরাধ করার কোনো সুযোগ নেই।

দল কখনো কোনো অপরাধীকে রক্ষা করার ঢাল হবে না উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার কাছে অপরাধীর পরিচয় কেবল অপরাধীই। গুটি কয়েক মানুষের অপরাধের জন্য সরকারের অনন্য অর্জনগুলো ম্লান হতে দেয়া যায় না এবং অপরাধের দায় ব্যক্তির, দলের নয়।

bangladesh al logo 1

মজবুত ও গণমুখী সংগঠন আওয়ামী লীগের প্রধান লক্ষ্য জানিয়ে তিনি বলেন, বিভিন্ন ইউনিটে পারস্পরিক সমঝোতা, সমন্বয় ও সম্প্রীতির অভাবে সংগঠনের অচলাবস্থা তৈরি হয়ে থাকে। সেই প্রেক্ষিতেই দুটি জেলায় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। এটি কেন্দ্র হতে তৃণমূলের জন্য একটি বার্তা।

'দলের অভ্যন্তরীণ শৃঙ্খলাকে এখন গুরুত্বের সঙ্গে দেখা এবং সততা, নিষ্ঠা ও দলের প্রতি ত্যাগের স্বীকৃতিস্বরূপ জেলা থেকে কেন্দ্রে কর্মীদের পুরস্কৃত করা হচ্ছে। পুরো দেশে সাংগঠনিক নেতৃত্বের ওপর দলীয় সভাপতির দৃষ্টি আছে। শেখ হাসিনার কাছে সবার রিপোর্ট আছে এবং যারা বিভিন্ন পর্যায়ে জনপ্রতিনিধি ও দলীয় দায়িত্বে আছেন, তাদের কার্যক্রমও মনিটর করা হচ্ছে, যোগ করেন মন্ত্রী।

sheikh mujib 2020