advertisement
আপনি দেখছেন

দেশে উৎপাদিত ফলের তালিকায় আনুষ্ঠানিকভাবে যুক্ত হলো আরো দুটি নাম, বারি আম-১৪ ও বারি ফসলা-১। জাতীয় বীজ বোর্ড গত ডিসেম্বরের ৩১ তারিখে এই দুটি জাতের ফল অনুমোদন দিয়েছে। এর আগে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের রাজশাহী ফল গবেষণা কেন্দ্র যথাযথ গবেষণা অনুসরণের পর ফল দুটির সনদের জন্য আবেদন করেছিল।

new fruits

বারি আম-১৪ আমেরই একটি নতুন জাত। এর উৎস সৌদি আরব। যথাযথ গবেষণা আর যত্নের পর এটি এখন বাংলাদেশেও উৎপাদিত হচ্ছে। ২০১০ সালে সৌদি আরব থেকে এই আম গাছের একটি ডাল সংগ্রহ করে নিয়ে আসেন বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউটের বিজ্ঞানী গোলাম মর্তুজা। সেই ডালের কলম করে দশটি চারাগাছ তৈরি করা হয়, তার মধ্যে মরে গেছে ৯টি।

বেঁচে যাওয়া একটি গাছ থেকেই বর্তমানে বারি আম-১৪ এর বেশ কয়েকটি গাছ ফল দিচ্ছে। ফলগুলো বেশ স্বাদ, পুষ্টির মানও অনেক উন্নত বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা। পাকার সময় ফলটি লাল খয়েরি রঙ ধারণ করে। জুলাইয়ের শেষ এই গাছগুলো ফল দিতে শুরু করে।

bari logo

অনুমোদন পাওয়া অন্য ফলটি হলো বারি ফসলা-১। এটি স্থানীয় ফসলা ফলের জাত, যা আগে থেকে বাংলাদেশে ছিল। তবে অপরিচিত এই ফলটি এবার স্বীকৃতি পেলো। মে এবং জুন মাসে ফসলা গাছ ফল দেয়। পাকলে বেগুনি রঙ ধারণ করে ফলগুলো।

রাজশাহী ফল গবেষণা কেন্দ্রের বিজ্ঞানী ড. আলিম বলেন, এ নিয়ে দেশে মোট ৩৬ টি ফলের ৯২টি জাত স্বীকৃতি লাভ করলো। বিজ্ঞানীদের গবেষণায় আরো কয়েকটি ফল রয়েছে। যথাথথ প্রক্রিয়ায় সেগুলো নিয়ে গবেষণা করা হচ্ছে। সব ঠিকঠাক থাকলে আরো কয়েকটি ফল যোগ হতে পারে অনুমোদনের তালিকায়।

sheikh mujib 2020