advertisement
আপনি দেখছেন

অক্সফোর্ড-অ্যাস্ট্রাজেনেকার উদ্ভাবিত করোনার টিকা ভারতের সেরাম ইনস্টিটিউটের মাধ্যমে পেয়েছে বাংলাদেশ। এ টিকা ব্যবহারের অনুমতি দেয়ার পর আজ বুধবার টিকাদান কার্যক্রমের উদ্বোধন করা হয়। এর মধ্য দিয়ে করোনা মোকাবেলায় নতুন অধ্যায়ের সূচনা হলো।

pm ticka inaugurationটিকাদান কার্যক্রমের উদ্বোধন

এদিন রাজধানীর কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতালে টিকা কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যুক্ত হয়ে উদ্বোধনের ঘোষণা দেন তিনি।

হাসপাতালটির সিনিয়র স্টাফ নার্স রুনু বেরোনিকা কস্তাকে প্রথমে টিকা দেয়ার মধ্য দিয়ে কর্মসূচি শুরু হয়। এর মধ্য দিয়ে ইতিহাস গড়লেন তিনি। স্বাস্থ্যকর্মী থেকে শুরু করে বিভিন্ন পেশার ২৫ জনকে টিকা দেয়া হচ্ছে সবার আগে।

এর আগে মঙ্গলবার ভারত থেকে আসা টিকা পরীক্ষা-নিরীক্ষায় নিরাপদ প্রমাণিত হওয়ায় ব্যবহারের অনুমতি দেয়ার কথা জানানো হয়। সরকারের ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মাহবুবুর রহমান জানান, প্রথম চালানের ৫০ লাখ ডোজ ব্যবহারের অনুমোদন দেয়া হয়েছে।

drag administration dgরুনু বেরোনিকা কস্তাকে টিকা দেয়া হচ্ছে

এদিকে, টিকাদান ব্যবস্থাপনার অ্যাপ ও ওয়েবসাইট আজই চালু হচ্ছে বলে জানানো হয়। টিকা নিতে আগ্রহীদের অনলাইনে নিবন্ধন করতে বলা হয়েছে।

ইতোমধ্যে দেশে এসে পৌঁছেছে সেরামের টিকার ৭০ লাখ ডোজ। এর মধ্যে গত ২০ জানুয়ারি ভারত সরকারের পক্ষ থেকে উপহার হিসেবে এসেছে ২০ লাখ ডোজ। বাকি ৫০ লাখ গত সোমবার এসেছে। এগুলো বাংলাদেশ সরকারের কেনা। এভাবে প্রতিমাসে ৫০ লাখ করে মোট ৩ কোটি ডোজ ভ্যাকসিন আসবে।