advertisement
আপনি পড়ছেন

রাজধানীর গুলশানে সন্ত্রাসী হামলার পর শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরসহ গোটা রাজধানীতে নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বলছে, যেকোন ধরনের অনাকাঙ্খিত ঘটনা এড়াতে সতর্ক অবস্থান নেওয়া হয়েছে।

security increased in dhaka

আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়নের (এপিবিএন) এএসপি মো. আশরাফুজ্জামান নিরাপত্তা জোরদার করার বিষয়টি বলেছেন। জানা যায়, রাজধানীর বিমানবন্দর এলাকায় এপিবিএন’র বিশেষায়িত একটি টিম অবস্থান করছে। বিশেষ নজর রাখা হয়েছে বিমানবন্দরের ‘সিআরটি’ এলাকায়।

রাজধানীর শাহবাগ, সংসদ ভবন, মিরপুর ১০ নং, গাবতলী, বনানী, উত্তরাসহ রাজধানী গুরুত্বপূর্ণ সব পয়েন্টেই পুলিশের কড়া প্রহরা লক্ষ্য করা গেছে। গুলাশান এলাকায় নিরাপত্তার স্বার্থে যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হচ্ছে। ঘটনার আকস্মিকতায় রাত নয়টার পর থেকেই রাজধানী প্রায় জনশূন্য হয়ে পড়েছে।

এর আগে রাজধানীর গুলশানে রাত নয়টার দিকে হলি আর্টিজান বেকারি নামের একটি বেকারিতে সন্ত্রাসী-পুলিশ গুলি বিনিময়ের ঘটনা ঘটেছে। পুলিশ বলছে, ওই বেকারিতে কয়েকজন বিদেশিকে জিম্মি করে রাখা হয়েছে। গোলাগুলির এই ঘটনায় বনানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও ডিবির এসি নিহত হয়েছেন। এছাড়াও পুলিশ সদস্য ও সাধারণ পথচারীসহ মোট ২০ ব্যক্তি আহত হয়েছেন।

গুলশানের হামলার দায় আইএস স্বীকার করেছে বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক বিতর্কিত সংবাদ সংস্থা সাইট ইন্টেলিজেন্স গ্রুপ। শুক্রবার রাত দেড়টার দিকে ওয়েবসাইটটি এই খবর দেয়।

আপনি আরো পড়তে পারেন

সাইটের বিবৃতি: গুলশানের ঘটনায় আইএস জড়িত

গুলশানে আহত ডিবির এসি নিহত

জিম্মিদের ২০ জনই বিদেশি নাগরিক

প্রস্তুত পুলিশ বাহিনী, চার কিলোমিটার এলাকা ঘেরাও

র‍্যাব মহাপরিচালক: বিপথগামীদের সাথে কথা বলতে চাই