advertisement
আপনি পড়ছেন

দেশের সবচেয়ে ঈদ জামায়াত অনুষ্ঠিত হয় কিশোরগঞ্জের শোলাকিয়ায়। ঈদের দিন সকাল নয়টায় মাঠের কাছে আজিমুদ্দিন হাইস্কুলের পাশে বিস্ফোরণ ও গুলির ঘটনা ঘটেছে। ভয়াবহ এ বিস্ফোরণে নিহতে সংখ্যা বেড়ে চার-এ পৌঁছেছে। আহত হয়েছেন কমপক্ষে ১৫ জন। এরমধ্যে বেশিরভাগই পুলিশ। পুলিশ বলছে, সন্দেহভাজন দুইজনকে ঘটনাস্থল থেকে আটক করা হয়েছে।

solakia bomb blast

জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আবু সায়েম জানান, জহুরুল হক নামের একজন পুলিশের কনস্টেবল নিহত হয়েছেন। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুলিশের একজন জানান, নিহতদের মধ্যে একজন হামলাকারী হতে পারে। জানা যায়, পরে নিহত বাকি দু'জনের মধ্যে একজন পুলিশ ও আরেকজন নারী।

র‍্যাবের ভৈরব সূত্র জানায়, বিস্ফোরণে ঝর্ণা রানি ভৌমিক নামে এক নারী নিহত হয়েছেন। এদিকে আহত পুলিশ সদস্য আনসারুল্লাহ ময়মনসিংহ মেডিকেলে নেয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ময়মনসিংহ মেডিকেলে পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাসির উদ্দিন আহমেদ জানান, চিকিৎসাধীন আহত ছয়জন পুলিশকে হেলিকপ্টারে করে ঢাকার সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তারা স্প্লিটারবিদ্ধ গুরুতর আহত।

এলাকাবাসী জানায়, ঈদের জামাতের আগে শোলাকিয়া ঈদগাহ থেকে প্রায় এক কিলোমিটার দূরে এই ঘটনা ঘটে। সকার নয়টার দিকে মুসল্লিদের ঈদগাহে নামাজ পড়তে যাওয়ার সময় আজিমুদ্দিন স্কুলের পাশে টহলরত পুলিশের ওপর হামলা চালায় দুর্বৃত্তরা। এসময় মুসল্লিদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। অবশ্য পরে নির্বেঘ্নেই ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

সর্বশেষ গত ১ জুলাই রাতে রাজধানীর গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় এই ধরনের হামলার ঘটনা ঘটে। সেখানে হামলাকারীসহ ২৮ জন নিহত হন। নিহদের মধ্যে অধিকাংশই ছিলো বিদেশি নাগরিক।

আপনি আরো পড়তে পারেন

শোলাকিয়ার কাছে বিস্ফোরণ-গুলি, পুলিশসহ নিহত ৪

শেখ হাসিনা: ঈদের নামাজ বাদ দিয়ে যারা মানুষ খুন করে, তারা মুসলমান না

ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনায় উদযাপিত হচ্ছে পবিত্র ঈদ-উল-ফিতর

লাশ নিতে কেউ আসেনি

ক্ষমা চাইলেন রোহানের বাবা

গুলশানে বোমাতঙ্ক