advertisement
আপনি দেখছেন

মুরগির বার্ড ফ্লু প্রতিরোধের টিকা (৩ ডোজ) উদ্ভাবন করেছে বাংলাদেশি ওষুধ কোম্পানি এফএনএফ ফার্মাসিউটিক্যালস। ‘বাংলা বার্ড ফ্লু এইচ৯ ভ্যাক’ নামের এই টিকা উৎপাদন ও বিপণনের অনুমোদন দিয়েছে ওষুধ প্রাশাসন অধিদপ্তর।

bird flu vaccineবার্ড ফ্লুর টিকা

সংশ্লিষ্ট গবেষকরা জানান, নিয়ম অনুযায়ী তিন ডোজের প্রথম ডোজ মুরগির বাচ্চার ৭-১৪ দিন বয়সে, দ্বিতীয় ডোজ ২৮ দিনে এবং শেষ ডোজ ৬ মাস হলে দিতে হয়।

ঝিনাইদহের সদর উপজেলার ৫নং কুমড়াবাড়ীয়া ইউনিয়নের রাউতাইল এলাকায় তৈরি হচ্ছে এই বার্ড ফ্লুর টিকা। তিন বছরের গবেষণায় এটি উদ্ভাবন করেছেন বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, ময়মনসিংহের চার জন গবেষক।

bird flu vaccine 1বার্ড ফ্লুর টিকা

তারা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয়টির মাইক্রোবায়োলজি ও হাইজিন বিভাগের অধ্যাপক আলিমুল ইসলাম, ডা. কোহিনুর পারভীন, ডা. মোস্তফা কামাল ও আয়নুল হক। তাদের সহায়তা করেছেন ১৫ জন উৎপাদন কর্মকর্তা।

প্রতিষ্ঠানটির উপদেষ্টা গবেষক আলিমুল ইসলামের নেতৃত্বে গবেষকদের এই সাফল্য বার্ড ফ্লুর টিকায় আত্মনির্ভরশীল হবে দেশ। দেশেই টিকা উৎপাদন করতে পারায় এখন আর বিদেশ থেকে এটি আমদানি করতে হবে না।

এর ফলে একদিকে যেমন কম খরচেই টিকার ব্যবহার করে উপকৃত হবেন দেশের মুরগি খামারিরা। অন্যদিকে, বিদেশে রপ্তানি করে বৈদেশিক মুদ্রা আয়ের আশার কথা জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট গবেষকরা।

poultry farmপোল্ট্রি ফার্ম, ফাইল ছবি

ডা. কোহিনুর পারভিন ও ডা. মো. মোস্তফা কামাল জানান, বার্ড ফ্লু রোগ প্রতিরোধে বাজারে পাওয়া অন্যান্য টিকার থেকে তাদেরটি অনেক ভালো কাজ করছে। বৈশ্বিক এই রোগ থেকে পোল্ট্রি শিল্প রক্ষায় টিকার সুফল পাবেন দেশের মুরগির খামারিরা।

এ বিষয়ে ঝিনাইদহের প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা আনন্দ কুমার অধিকারী জানান, দেশে প্রথমবারের মতো বার্ড ফ্লুর টিকা তৈরি করছে এফএনএফ ফার্মাসিউটিক্যালস। এটা দেশের পোল্ট্রি শিল্পের জন্য একটা বড় অর্জন।