advertisement
আপনি দেখছেন

কক্সবাজারে আশ্রয় নেওয়া মিয়ানমারের সংখ্যালঘু মুসলিম রোহিঙ্গাদের শিবিরে আবারো অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। মঙ্গলবার দিবাগত রাত পৌনে ৮টার দিকে উখিয়ার বালুখালী শিবিরের ৯ নম্বর ক্যাম্পের বি- ব্লকে এ আগুনের ঘটনা ঘটে।

rohingya camp burnt coxsbazarরোহিঙ্গা ক্যাম্পে ভস্মীভূত ৪০ ঘর

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আগুনের ঘটনায় অন্তত ৩০-৪০টি ঝুপড়ি ঘর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। তবে এখন পর্যন্ত হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। এর আগেও একাধিক বার কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছেন কক্সবাজার ৮ আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক এসপি শিহাব কায়সার খান। তিনি বলেন, খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে দমকল কর্মী ও এপিবিএন সদস্যদের সহযোগিতায় আগুন নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হয়েছে। অবশ্য তার আগেই ৩০-৪০টির মতো ঘর পুড়ে গেছে।

rohingya camp 05কক্সবাজারে রোহিঙ্গা ক্যাম্প, ফাইল ছবি

আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়নের এই কর্মকর্তা আরো বলেন, অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় এখনো পর্যন্ত হতাহতের কোনো খবর পাওয়া যায়নি। তাছাড়া আগুনের সূত্রপাত কীভাবে হয়েছে, সেটাও তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি।

উল্লেখ্য, এর আগে গত ২২ মার্চ বালুখালী রোহিঙ্গা শিবিরে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড ঘটে। এতে প্রায় ১০ হাজার ঘর ভস্মীভূত হয়ে যায়। জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর জানায়, ওই ঘটনায় অন্তত ১৫ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এ ছাড়া ওই অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় বাস্তুচ্যুত হয় প্রায় ৫০ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী। একই সঙ্গে সেখানে স্থাপিত বিদ্যালয় এবং খাদ্য সঞ্চয় কেন্দ্রসহ অনেক ভবন আগুনে পুড়ে ধ্বংস হয়ে যায়। রোহিঙ্গা শরণার্থীরা ২০১৭ সালে কক্সবাজারে আশ্রয় নেওয়ার পর এটিই ছিল সবচেয়ে ভয়াবহ বিপর্যয়।