advertisement
আপনি দেখছেন

করোনার সংক্রমণের বিরুদ্ধে দেশের ৬০-৭০ শতাংশ মানুষের দেহে অ্যান্টিবডি তৈরি হয়ে গেছে। সে কারণে সংক্রমণের হারও ধীরে ধীরে কমে এসেছে। এ সময় সবাই যদি সচেতন হয় এবং সরকার যদি টিকাদান কর্মসূচি আরও গতিশীল করে, তাহলে ভাইরাসটি সম্পূর্ণ নির্মূল করা সম্ভব। এসব কথা বলেছেন প্রখ্যাত বিজ্ঞানী ও আইসিডিডিআরবির ইমিউনোলজি বিভাগের প্রধান ড. ফেরদৌসী কাদরী।

firdausi qadriড. ফেরদৌসী কাদরী

সম্প্রতি এশিয়ার নোবেল খ্যাত র‌্যামন ম্যাগসেসে পুরস্কার-২০২১ জিতেছেন ড. ফেরদৌসী কাদরী। সে উপলক্ষে আজ শুক্রবার (১৭ সেপ্টেম্বর) সকালে একটি ভার্চুয়াল সাক্ষাৎকার দিয়েছেন তিনি। সেখানে বর্তমান করোনা পরিস্থিতি নিয়ে বলতে গিয়ে প্রখ্যাত এই বিজ্ঞানী বলেন- শুধু বাংলাদেশে নয়, পৃথিবীর সব দেশের মানুষের মধ্যেই কমবেশি অ্যান্টিবডি তৈরি হয়েছে।

আন্তর্জাতিক উদরাময় গবেষণা কেন্দ্র, বাংলাদেশের (আইসিডিডিআরবি) এই বিজ্ঞানী বলেন, সংক্রমণ যখন কমছে ঠিক তখনই আমরা যদি আরও কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলি তাহলে করোনার বিরুদ্ধে শতভাগ জয়ী হওয়া সম্ভব। নিয়মিত বিরতিতে হাত ধুতে হবে, মাস্ক পরতে হবে এবং সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে হবে।

ড. ফেরদৌসী কাদরীকে পুরস্কার দেওয়ার কারণ হিসেবে ম্যাগসেসে অ্যাওয়ার্ড ফাউন্ডেশন জানিয়েছে, এশিয়া এবং আফ্রিকার দেশগুলোকে চ্যালেঞ্জের মুখে ফেলে দেওয়া কলেরা ও টাইফয়েড প্রতিরোধে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছেন ড. ফেরদৌসী। একেবারে স্বল্প দামে মুখে খাওয়ার কলেরা ভ্যাকসিন এবং টাইফয়েডের ভ্যাকসিন আবিষ্কারে তিনি ছিলেন প্রথম সারির একজন।