advertisement
আপনি পড়ছেন

ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মীর হাতে নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়ে মৃত্যুবরণ করা বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার রায় পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। রায় ঘোষণার নতুন তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে ৮ ডিসেম্বর। আজ রোববার (২৮ নভেম্বর) দুপুরে ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইবুনাল-১ এর বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামান এই আদেশ দেন।

abrar fahad killingআবরার ফাহাদ

আজ রোববার ছিল চাঞ্চল্যকর এই হত্যা মামলার রায় ঘোষণার তারিখ। সে অনুযায়ী সকাল ৯টার দিকেই ২২ আসামিকে আদালতে হাজির করা হয়। আদালত প্রাঙ্গণে ছিলেন আবরারের আত্মীয়-স্বজন এবং আসামিদের অভিভাবকরাও। দুপুর ১২টার কিছুক্ষণ পর রায়ের জন্য নতুন তারিখ ঘোষণা করেছেন বিচারক।  

আবরারের হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আসামি করা হয়েছিল ১৯ জনকে। তদন্ত শেষে ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে চার্জশিট প্রদান করা হয়। এজাহারভুক্ত ১৯ আসামির মধ্যে ১৬ জন এবং এজাহারবহির্ভূত ৬ জনের মধ্যে ৫ জনকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়। বাকিরা এখনও পলাতক রয়েছে। আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন ৮ জন।

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর রাতে আবরার ফাহাদকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করে ছাত্রলীগের বুয়েট শাখার নেতাকর্মীরা। পরদিন আবরারের বাবা বাদী হয়ে চকবাজার থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। ১৩ নভেম্বর ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে মামলার চার্জশিট দাখিল করা হয় পুলিশের পক্ষ থেকে।